বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্ণর’র সাথে চেম্বারের মতবিনিময়
চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের ইমেজ লাঘবের আহবান

0
.

সাম্প্রতিক সময়ে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীরা ব্যাংক হতে ঋণপ্রাপ্তি, পরিশোধ, গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে তুলনামূলক অধিক জটিলতার সম্মুখীন হচ্ছেন। বিশেষ করে চট্টগ্রামের ব্যবসা ও শিল্পায়নের পথিকৃৎ হিসেবে বিবেচিত অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ঋণ খেলাপী বা রুগ্ন শিল্প বিবেচিত হওয়ার ফলে বিভিন্নভাবে তারা ইমেজ সংকটে পড়ছেন। জাতীয় সংকটের প্রকৃত কারণ খতিয়ে দেখা এবং এর থেকে উত্তরণের সম্ভাব্য কার্যকরী পন্থা নিয়ে মতবিনিময়ে মিলিত হন চট্টগ্রাম চেম্বার ও বাংলাদেশ ব্যাংক।

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র সভাপতি মাহবুবুল আলম ২৯ অক্টোবর বিকালে বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্ণর ফজলে কবিরের সাথে ঢাকায় তাঁর কার্যালয়ে এক মতবিনিময়ে এসব আলোচনা হয়।

চেম্বার সভাপতি ব্যাংক ঋণের সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ ও কমপক্ষে ৫টি বাণিজ্যিক ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় চট্টগ্রামে স্থাপনসহ অন্যান্য ব্যাংকের ডিএমডি পর্যায়ের কর্মকর্তার অধীনে কর্মকান্ড পরিচালনার প্রস্তাব করেন। বিশেষ করে চট্টগ্রামের বিভিন্ন শিল্প ও ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে ঋণ খেলাপি বা রুগ্ন শিল্প হিসেবে চিহ্নিত করা হলেও এর প্রকৃত কারণ হিসেবে শুধুমাত্র ব্যবসায়ীদের ব্যর্থতা নাকি এগ্রেসিভ ব্যাংকিংয়েরও ভূমিকা রয়েছে তা পর্যবেক্ষণ করা প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন। একই সাথে এ সকল প্রতিষ্ঠানকে উজ্জ্বীবিত করার পাশাপাশি ইমেজ সংকট লাঘবে পদক্ষেপ গ্রহণ ও রপ্তানি খাতে নগদ প্রণোদনা দেয়ার ব্যবস্থাকে সহজতর করা এবং এগ্রেসিভ ব্যাংকিং নিয়ন্ত্রণে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের অনুরোধ জানান।

এছাড়া মাহবুবুল আলম ব্যাংক ঋণ আদায়ের ক্ষেত্রে সরাসরি আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ না করে ব্যাংক-ক্লায়েন্ট সম্পর্ককে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে সমঝোতার ভিত্তিতে সমাধান, অর্থ ঋণ আদালতের সিদ্ধান্ত প্রদানের পূর্বে ব্যবসায়ীদের আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ প্রদানসহ এক্ষেত্রে ভারসাম্যমূলক নীতিমালা প্রবর্তন, ঋণ খেলাপি ব্যবসায়ীদের আর্থিক স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনতে ও ঋণ পরিশোধের সক্ষমতা অর্জনে সহায়তার লক্ষ্যে বিশেষ স্কিম’র আওতায় মনিটরিং সেলের তত্ত্বাবধানে শর্তসাপেক্ষে নতুন করে ঋণ প্রদানের বিষয় বিবেচনা করার আহবান জানান।

বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্ণর ফজলে কবির চিটাগাং চেম্বার সভাপতির প্রস্তাবনাসমূহ বিশেষ করে ব্যাংকিং সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনা ও ব্যবসায়ীদের সাথে ব্যাংকিং সম্পর্কের উন্নয়নে আরো যতœবান হওয়ার আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি আরো বলেন বেসরকারী বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহের বোর্ড অব ডাইরেক্টর্স চাইলেই চট্টগ্রামে ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় স্থাপন করতে পারে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের কোনরূপ বাধা নেই। তাই এ লক্ষ্যে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে এগিয়ে আসতে উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে বলে গর্ভণর মন্তব্য করেন।

কোন মন্তব্য নেই