চুয়েটে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

0
.

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এর ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের লেভেল-১ স্নাতক (সম্মান) কোর্সের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আজ ২ নভেম্বর (শুক্রবার) অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে ‘ক’ গ্রুপের লিখিত পরীক্ষা নির্ধারিত সময় সকাল ১০টায় থেকে ভর্তি পরীক্ষা আরম্ভ হয়ে একটানা বেলা ১টায় শেষ হয়।

অপরদিকে বিকেল আড়াইটা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ‘খ’ গ্রুপের মুক্তহস্ত অংকন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

উল্লেখ্য, এবারের ভর্তি পরীক্ষায় ১১ টি উপজাতি কোটাসহ মোট ৮৪১ আসনে (নিয়মিত আসন ৮৩০ টি) বিপরীতে মোট ৮ হাজার ৩৪২ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

এদিকে সকাল ১১টায় চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম ভর্তি পরীক্ষার বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এ সময় ভর্তি পরীক্ষা কমিটি-২০১৮ এর সভাপতি অধ্যাপক ড. মোঃ সাইফুল ইসলাম এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় চুয়েটের মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, সকলের সার্বিক সহযোগিতায় অত্যন্ত সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সরকারের বিভিন্ন সেবাপ্রদানকারী সংস্থা, প্রশাসন এবং চুয়েট পরিবারের সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীর পাশাপাশি সংশ্লিষ্টদের সকলের সহযোগিতা মাধ্যমে এটি সম্ভব হয়েছে। সেজন্য আমি চুয়েট প্রশাসনের পক্ষ থেকে সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

প্রসঙ্গত, চুয়েটে ভর্তি পরীক্ষার ক্ষেত্রে লিখিত পরীক্ষা ও মুক্তহস্ত অংকন দুই পর্বে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। ইঞ্জিনিয়ার বিভাগসমূহ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ নিয়ে ‘ক’ গ্রুপ। অন্যদিকে ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগসমূহ, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ এবং স্থাপত্য বিভাগ নিয়ে ‘খ’ গ্রুপ। ভর্তি পরীক্ষার ফলাফলসহ ভর্তি সম্পর্কিত যাবতীয় নির্দেশনা ও তথ্য-উপাত্ত চুয়েটের

ওয়েবসাইটে(http://www.cuet.ac.bd/admissionঅথবা http://student.cuet.ac.bd/admission2018) পাওয়া যাবে।

 

ভর্তির জন্য নির্ধারিত বিভাগ ও আসন সংখ্যাঃ 
বর্ধিত আসনসহ বিভাগসমূহ হচ্ছে- সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং (১৩০ টি আসন), মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (১৮০ আসন), কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (১৩০ আসন), ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (১৮০ আসন), ইলেকট্রনিক্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (৬০ আসন), পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং (৩০ আসন), ওয়াটার রিসোর্সেস ইঞ্জিনিয়ারিং (৩০ আসন), মেকাট্রনিক্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং (৩০ আসন), আর্কিটেকচার (৩০ আসন), আরবান এন্ড রিজিওনাল প্ল্যানিং (৩০ আসন)। -প্রেসবিজ্ঞপ্তি

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন