চট্টগ্রামে “সেফটি এন্ড সিকিউরিটি ট্রেনিং ফর টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট” শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

0
.

চট্টগ্রামে ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড রিসোর্সেস ডেভেলপমেন্ট ইনিশিয়েটিভ (এমআরডিআই) উদ্যোগে মিডিয়া ইনস্টিটিউট লিননেয়াস ইউনিভার্সিটি, টিভি ক্যামেরাজার্নালিস্ট এসোসিয়েশন বাংলাদেশ (টিসিএ) ও টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, চট্টগ্রাম (টিসিজেএ) এর সহযোগিতায় সেফটি এন্ড সিকিউরিটি ট্রেনিং ফর টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট শীর্ষক দুইদিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা ১১ নভেম্বর রবিবার নগরীর একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কর্মশালায় প্রশিক্ষন প্রদান করেন এটিএন বাংলার চিফ রির্পোটার সানাউল হক, ফায়ার সার্ভিস সিভিল এন্ড ডিফেন্স এর,সহকারি পরিচালক আকরাম হোসেন, বাংলাদেশ পুলিশের স্পেশাল এ্যাকশন গ্রুপের ছানোয়ার হোসেন, বাংলাভিশনের সিনিয়র ক্যামেরা জার্নালিস্ট ফজলুল হক।

কর্মশালায় চট্টগ্রামের ৩৮ জন ক্যামেরাজার্নালিস্ট অংশগ্রহণ করেন।

টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, চট্টগ্রামের সভাপতি শফিক আহমেদ সাজীবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীগণকে সনদপত্র প্রদান করেন প্রধান অতিথি চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. হাবিবুর রহমান।

.

এসময় আলোচনায় অংশনেন ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড রিসোর্সেস ডেভেলপমেন্ট ইনিশিয়েটিভ (এমআরডিআই) নির্বাহী পরিচালক হাসিবুর রহমান, সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার মোঃ সাহিল, টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, বাংলাদেশের সহ-সভাপতি আবুল কালাম, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল ফারুক (বিপ্লব), সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, সহ-অর্থ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম মাসুম।

এদিকে আগের দিন ১০ নভেম্বর শনিবার কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগম, বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী।

কর্মশালায় বক্তারা বলেন, সাংবাদিকতার স্বাধীনতার অর্থ স্বেচ্ছাচারিতা নয়। এর একটা নীতি নৈতিকতা রয়েছে। এর মূল্যবোধ রয়েছে। এর একটা মানবিক দিকও রয়েছে। সাংবাদিকদের দেশের আইন-কানুন মেনে সংবাদ পরিবেশন করতে হবে। তাহলে দেশ ও জাতি উপকৃত হবে। নতুবা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হবে।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন