চট্টগ্রাম ইপিজেড ৩ দিন বন্ধ হলেও খোলা রয়েছে ইয়ংওয়ান, ভোট দিতে পারবে কিনা সংশয় ৫৫ হাজার শ্রমিক

0
.

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং বিদ্যুৎ ,মেরামতের কারণে চট্টগ্রাম ইপিজেডে ১৭১ শিল্প প্রতিষ্ঠান আগামীকাল ২৮ ডিসেম্বর থেকে ৩দিনের টানা ছুটি শুরু হচ্ছে।

কিন্তু  কুরিয়ান প্রতিষ্ঠান ইয়ং ওয়ানের কর্তৃপক্ষের খামখেয়ালীপনা ও এঘোয়ামী সিদ্ধান্তের কারণে আগামী ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটাধীকার প্রয়োগ নিয়ে বিপাকে পরেছেন বৃহৎ এ প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৫৫ হাজার শ্রমজীবি! কারণ ইপিজেডের সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও আগামী ২৯ ডিসেম্বর খোলা রাখা হয়েছে ইয়ং ওয়ান।

জানাগেছে, ভোর ছয়টা থেকে চট্টগ্রাম ইপিজেডের ১১ কেভি ফিডার লাইন এবং ৩৩/১১ কেভি সাবস্টেশনের জরুরি মেরামত কাজ করার জন্য বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রাখা হবে। সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত কাজ চলবে। একইভাবে ৩১ ডিসেম্বর ভোর ছয়টা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত জরুরি মেরামতের জন্য বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

সিইপিজেডের নির্বাহী প্রকৌশলী (এম) সোহেল আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে দুদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে। এছাড়া সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাহী আদেশে ৩০ ডিসেম্বর ইপিজেডে ছুটি থাকবে। এমন খবরে সিইপিজেডের সবকয়টি কারখানা বন্দ্ব থাকলে ও আগামী ২৮,২৯ ডিসেম্বর প্রতিষ্টানটি খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইয়ং ওয়ান কর্তৃপক্ষ।

এখানে কর্মরত চট্টগ্রামের পটিয়ার জোবেদা খানম জানিয়েছেন শনিবার অফিস করে রাতে পটিয়া গিয়ে পর দিন ভোট দেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে। শুনেছি ইপিজেডের প্রায় সব কারখানা শনিবার থেকে টানা তিনদিন বন্ধ থাকবে কিন্তু আমাদের কোম্পানী ভোটের আগের দিন বন্ধ না দেওয়াই এখানকার অনেকে ভোটাধিকার প্রয়োগ থেকে বঞ্চিত হবে। তিনি কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্ত পূর্ণবিবেচনার দাবী জানান।

এ ব্যাপারে জানতে ইয়ংওয়ানের ম্যানেজার এইচ আর কাইসারকে ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন