রাজশাহী কিংসের হার দিয়ে শুরু

0
.

প্রতিবারের মতো এবারও ফেভারিটের তকমা নিয়ে আসর শুরু করেছে তিনবারের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা ডায়নামাইটস। দেশ-বিদেশের অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া ডায়নামাইটসরা এবারও আসর শুরু করেছে জয় দিয়ে। ডায়নামাইটস অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের বিপরীতে কিংসদের অধিনায়ক মেহেদী মিরাজ।

বলা যায়, ঢাকার অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের বিপরীতে তারুণ্যে ভরা একটা দল নিয়ে নেমেছে রাজশাহী কিংস। বিপিএলের উদ্বোধনী দিনে দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে ঢাকার বিপক্ষে টস জিতে আগে বল করার সিদ্ধান্ত নেয় কিংস অধিনায়ক। এই ম্যাচ দিয়ে বিপিএলের ইতিহাসে সর্বকনিষ্ঠ অধিনায়কের খাতায় নাম লেখান মিরাজ। টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে দুর্দান্ত শুরু ডায়নামাইটসের দুই ওপেনার হজরতুল্লাহ জাযাই আর সুনীল নারিনের। এই জুটিতে দুজন মিলে করেন ১০ ওভার ৪ বলে ১১৬ রান।

আফগান ব্যাটসম্যান হযরতুল্লাহ খেলেন ৪১ বলে ৭৮ রানের ঝড়ো ইনিংস। তার ইনিংসে ছিল ৪টি চার আর ৭টি ছয়। আরেক ওপেনার সুনীল নারিনও রান তুলেন দ্রুত। তার ব্যাটে আসে ২৮ বলে ৩৮ রান। ছিল ৪টি চার আর দুটি ছয়। দুই ওপেনারের বিদায়ের পর মিডল অর্ডারের ব্যর্থতায় রানের চাকা ধীর হয়ে গেলে হাল ধরেন আন্দ্রে রাসেল আর শুভাগত হোম। আন্দ্রে রাসেলের ১৯ বলে ২১ আর শুভাগত হোমের ১৪ বলে ৩৮ রানে ভর করে ২০ ওভারে ঢাকার সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৮৯ রান। রাজশাহী কিংসের হয়ে আরাফাত সানি নেন সর্বোচ্চ ২ উইকেট। ১টি করে উইকেট নেন মেহেদী মিরাজ, কায়েস আহমেদ ও মোহাম্মদ হাফিজ। ১৯০ রানের লক্ষ্য টপকাতে গিয়ে যেন দিশেহারা হয়ে পড়ে রাজশাহী কিংসের ব্যাটসম্যানরা। ওপেনার মোহাম্মদ হাফিজের ২৮ বলে ২৯ রান ছাড়া বাকি নয় ব্যাটসম্যানের কেউই পার করতে পারেননি দশ রানের কোটা। রুবেল হোসেনের ৩ উইকেট, মোহর শেখের ২ উইকেট আর ১টি করে উইকেট নেন সুনীল নারিন, আন্দ্রে রাসেল, সাকিব আল হাসান ও কাইরন পোলার্ড। ঢাকা ডায়নামাইটসদের বোলিং তোপে শেষ পর্যন্ত ১৮.২ ওভারে ১০৬ রানে গুটিয়ে যায় রাজশাহীর কিংসরা। ৮৩ রানের জয়ে আসরের প্রথম ম্যাচে ফেভারিটের মতোই শুরু ডায়নামাইটসদের।

কোন মন্তব্য নেই