চট্টগ্রামে তিন শিল্পপতিকে কারাদন্ড ও ১০কোটি টাকা অর্থদন্ড

0
.

চট্টগ্রামে চেক প্রতারণা মামলায় একটি শিল্প প্রতিষ্ঠানের ৩ পরিচালককে এক বছর কারাদণ্ড ও চেকের সমপরিমাণ (১০কোটি টাকা) অর্থদন্ড দিয়েছে আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে চট্টগ্রামের ৭ম যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ জেসমিন আক্তার কলি এ রায় দেন।

দন্ডিত আসামীরা হলেন- রুবাইয়া ভেজিটেবল অয়েল ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ” এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব মোঃ হারুন অর-রশিদ, পরিচালক হাসনাইন হারুন ও চেয়ারম্যান আনজুমান আরা বেগম।

ইসলামী ব্যাংক লিঃ নগরীর আগ্রাবাদ শাখার পক্ষে দায়ের করা মামলার আইনজীবি এ.এম জিয়া হাবীব আহসান পাঠক ডট নিউজকে জানান, আসামীরা আই.বি.বি.এল. আগ্রাবাদ শাখা থেকে বিনিয়োগ সুবিধা গ্রহণ করেন কিন্তু ব্যাংকের পাওনা টাকা যথাসময়ে আদায় না দেয়ায় তাঁরা খেলাপী গ্রাহকে পরিণত হন।

বিনিয়োগের টাকা পরিশোধের জন্য তাদের পরিচালিত প্রতিষ্ঠানের হিসাবের বিপরীতে প্রদত্ত ৯,৬৬,৫৪,১৮৭/- টাকার চেক বাদী ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট ব্যাংক হিসাবে উপস্থাপন করলে সেটি পাস না হয়ে পরিবর্তে ডিসঅনার হয়ে ফেরৎ আসে।

এনিয়ে ২০১২ সালের ৩০ অগাস্ট ত ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার মোহাম্মদ ফোরকান বাদী হয়ে চীফ মেট্টোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে এ মামলা দায়ের করেন।

পরবতীতে মামলা বিচার নিষ্পত্তির জন্য ৭ম যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ জেসমিন আক্তার কলি এর আদালতে হস্তান্তর করা হয়।

আদালত আসামীদের বিরুদ্ধে এন.আইএ্যাক্ট এর ১৩৮/১৪০ ধারার অপরাধে আসামীদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন এবং সাক্ষীর জেরা, জবানবন্দি যুক্তিতর্ক শেষে আজ আসামীদের কারাদ- ও অর্থদন্ডের আদেশ দেন।

আদালত সুত্রে জানাগেছে, মামলা চলাবস্থায় আসামীরা আদালত থেকে জামিনে গিয়ে পালিয়ে যায়। আদালতের রায় অনুযায়ী গ্রেফতার হওয়ার দিন থেকে সাজা কার্যকর হবে।

ব্যাংকের পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন- এডভোকেট এ.এম জিয়া হাবীব আহসান, এডভোকেট মোহাম্মদ শরীফ উদ্দিন, এডভোকেট এ.এইচ.এম জসিম উদ্দিন, এডভোকেট দেওয়ান ফিরোজ আহমদ, এডভোকেট প্রদীপ আইচ দীপু, এডভোকেট সাইফুদ্দিন খালেদ, এডভোকেট মোঃ হাসান আলী প্রমুখ।

কোন মন্তব্য নেই