বোয়ালখালীতে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় জমে উঠেছে

0
,

বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১২ প্রার্থীর প্রচার প্রচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলা।

এ নির্বাচনকে ঘিরে পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে প্রচার প্রচারণায় মেতে উঠেছে কর্মী সমর্থকরা। ২২ মার্চ রাত ১২টায় শেষ হবে প্রার্থীদের এ প্রচার প্রচারণা। আগামী ২৪ মার্চ উপজেলার ৭৭টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নুরুল আলম (নৌকা), জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী দিদারুল আলম ফজু (লাঙ্গল), স্বতস্ত্র প্রার্থী দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আবদুল কাদের সুজন (আনারস), জাসদ নেতা সৈয়দুল আলম (মোটর সাইকেল) ও শ্রমিক লীগ নেতা এসএম নুরুল ইসলাম (দোয়াত কলম)।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সেলিম উদ্দিন (তালা), এসএম সেলিম (উড়োজাহাজ), মো. রিদওয়ানুল হক টিপু (চশমা), সৈয়দ নুরুল করিম (টিউবওয়েল) ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাহিদা আক্তার শেফু (ফুটবল), শামীম আরা বেগম (প্রজাপতি) এবং সূপর্ণা ভঞ্জ (কলসি) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এর মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী না দিয়ে উন্মুক্ত রাখার কথা জানালেও বোয়ালখালীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগ একাংশের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা এসএম সেলিম ও উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি শামীম আরা বেগমকে সর্মথন দিয়েছেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ। এ নিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী নুরুল আলম ও সমর্থিত দুই ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকে নিয়ে চলছে প্রচার প্রচারণা।

বিএনপি নেত্রী সাহিদা আক্তার শেফু দুইবার বিএনপির সমর্থনে নির্বাচনে অংশ নিয়ে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। এবার তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন। দলীয় সিদ্ধান্ত না মেনে নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় তাকে দল থেকে বহিষ্কার করে বিএনপি।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আবদুল কাদের সুজন বলেন, আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী একাধিক জন থাকলেও জেলা এবং উপজেলা কমিটি তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতামত না নিয়ে চেয়াম্যান পদে একক নাম প্রস্তাব করেন। ফলে জেলা-উপজেলা কমিটির কেউ একজনের একক সিদ্ধান্ত মেনে নেয়নি দলের নেতাকর্মীরা। তাই নেতাকর্মীদের অনুরোধে ও নাগরিক কমিটির সমর্থনে নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। বোয়ালখালীকে মডেল উপজেলা হিসেবে গড়তে তার ২১ দফা নির্বাচনী ইশতেহার বিবেচনায় নিয়ে ভোটাররা ভোট দেবেন বলে তিনি আশাবাদী।

২০১৪ সালের নির্বাচনে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগ সর্মথিত মো. আতাউল হক, ইসলামী ফ্রন্ট সমর্থিত ভাইস চেয়ারম্যান ওবাইদুল হক হক্কানী ও বিএনপি সমর্থিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাহিদা আক্তার শেফু ।

বোয়ালখালী উপজেলায় ভোটার রয়েছেন ১লক্ষ ৮০ হাজার ২৬৫জন। এর মধ্যে পুরুষ ৯৩হাজার ৩২৯জন ও মহিলা ৮৬হাজার ৯৩৬জন ভোটার।

কোন মন্তব্য নেই