নগরী জুড়ে বৈশাখের যত আয়োজন

0
.

নতুন বছরকে বরণ করে নিতে প্রস্তুত চট্টগ্রাম। নগরীর চারটি স্থানে বড় আকারেসহ কয়েকটি স্থানে বর্ষবরণের অনুষ্ঠানকে ঘিরে শেষ হয়েছে নানা প্রস্তুতি। রাত পোহালেই নতুস বছরকে স্বাগত জানাতে মেতে উঠবে চট্টগ্রামবাসী।

এসব অনুষ্ঠানস্থলকে ঘিরে ইতিমধ্যে পুলিশ বিশেষ নজরদারি শুরু করেছে। নেয়া হয়েছে চার স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা। নগরীর ডিসি হিল, সিআরবি শিরীষতলা, চবি চারুকলা ইন্সটিটিউট, নেভাল-২, জেলা শিল্পকলা একাডেমিসহ সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের আয়োজনে বাংলা বর্ষ বিদায় ও বর্ষবরণের অনুষ্ঠান চলবে দু’দিন। আয়োজকদের সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। এদিকে নগরীর প্রত্যেকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজ উদ্যোগে বর্ষবরণের অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে বলে জানা গেছে।

আয়োজকরা জানান, নগরীর বাদশা মিয়া সড়কে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা ইন্সটিটিউটের সামনে থেকে পহেলা বৈশাখে র‌্যালি শুরু হয়ে ডিসি হিল পর্যন্ত এসে ফিরে যাবে চারুকলা চত্বরে। ইন্সটিটিউটে চলবে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান। একইভাবে ‘সম্মিলিত ১লা বৈশাখ উদযাপন পরিষদ’-এর আয়োজনে ডিসি হিলে ৪০তম বর্ষ বিদায় অনুষ্ঠান শুরু হবে শনিবার বিকাল ৪টায়। রবিবার ৪১তম বর্ষবরণ অনুষ্ঠান শুরু হবে ভোর ৬টায়।

‘সম্মিলিত পহেলা বৈশাখ উদযাপন পরিষদ, চট্টগ্রামের আয়োজনে ডিসি হিলে ৪০তম বর্ষবিদায় অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে আজ শনিবার বিকেল ৪টায়।  ৪১তম বর্ষবরণ অনুষ্ঠান শুরু হবে আজ ভোর ৬টায়। বৈশাখের আবাহন, চিরায়ত বাংলা গান, উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত, একক ও দলীয় সঙ্গীত, নৃত্য, আবৃত্তি, কথামালা ও সম্মাননা প্রদানের মধ্য দিয়ে এ অনুষ্ঠান চলবে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। নগরীর বাদশা মিয়া সড়কে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা ইনস্টিটিউটের সামনে থেকে পহেলা বৈশাখে র‌্যালি শুরু হয়ে ডিসি হিল পর্যন্ত এসে ফিরে যাবে চারুকলা চত্বরে। ইনস্টিটিউটে চলবে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান। ‘নববর্ষ উদযাপন পরিষদ, চট্টগ্রাম’এর উদ্যোগে সিআরবি চত্বরে শিরীষতলায় শনিবার বিকেল ৪টায় বর্ষবিদায় ও আজ সকাল ৮টায় শুরু হবে ১১তম বর্ষবরণ অনুষ্ঠান।  বিকেল ৩টায় অনুষ্ঠিত হবে সাহাব উদ্দিনের বলিখেলা।

বাংলা নববর্ষ উদযাপনে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনও (চসিক)। এ উপলক্ষে গতবাল থেকে তিন দিনের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে চসিক। মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। শনিবার বিকেল ৩টায় নগরীর জিমনেসিয়াম সংলগ্ন মাঠে বর্ষবিদায়ের মাধ্যমে তিনদিনের কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

.

রবিবার ভোরে শুরু হচ্ছে বর্ষবরণের অনুষ্ঠান, পরেরদিন সোমবার বৈশাখী উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। প্রতি বছরের মতো এবারো ফুলকি প্রাঙ্গণে ছোটদের তিনদিনের বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৪টায় এই মেলা শুরু হয়েছে। মেলায় অতিথি ছিলেন খ্যাতনামা নৃত্যশিল্পী মুনমুন আহমেদ।

এ আয়োজনে থাকছে ছোটদের মজাদার উপকরণ নিয়ে কুটুমকাটাম, বিচিত্র রসের আনন্দময় বইয়ের সম্ভার নিয়ে বইমেলা, খেলার আয়োজন খেলামেলা ও বিজ্ঞান প্রদর্শনী বিজ্ঞানমেলা। এ দিকে নেভাল-২ তে ‘প্রজন্মের বৈশাখ’র আয়োজনে পহেলা বৈশাখ সকাল ১০টা থেকে শুরু হবে। দিনব্যাপী আয়োজনে থাকবে র‌্যালি, নৃত্য, যাদু প্রদর্শন, বাংলা গান প্রভৃতি। অনুষ্ঠান চলবে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। জেলা শিল্পকলা একাডেমির অনিরুদ্ধ মুক্তমঞ্চে  বিকেল ৪টায় র‌্যালির মাধ্যমে পুরাতন বর্ষকে বিদায় জানানো হয়। থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও। আর আজ সকাল ৮টায় শুরু হবে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান।

নগরীর বাদশা মিয়া সড়কে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা ইনস্টিটিউটের সামনে থেকে পহেলা বৈশাখে র‌্যালি ডিসি হিল পর্যন্ত এসে ফিরে যাবে চারুকলা চত্বরে। আর ইনস্টিটিউটে চলবে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান।

চট্টগ্রামের নেভাল-২ হিসেবে পরিচিত সদর ফিরিঙ্গিবাজার সংলগ্ন কর্ণফুলীর তীরে ‘প্রজন্মের বৈশাখ’ এর আয়োজনে পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানমালা শুরু হবে সকাল ১০টা থেকে। এখানে দিনব্যাপী আয়োজনের মধ্যে থাকবে থাকবে র‌্যালি, নৃত্য, যাদু প্রদর্শন ও বাংলা গানের আসর।

চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির অনিরুদ্ধ মুক্তমঞ্চে শনিবার বিকাল ৪টায় র‌্যালির মাধ্যমে বর্ষ বিদায় ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলবে। আজ রোববার সকাল ৮টায় শুরু হবে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। এ আয়োজনে থাকছে- যন্ত্রসঙ্গীত, বৈশাখী সঙ্গীত, বাউল গান, রবীন্দ্রসঙ্গীত, আবৃত্তি, লোকনৃত্য, উপজাতীয় নৃত্য, লালনগীতি প্রভৃতি।

এদিকে বৈশাখ উপলক্ষে নগরীর পাঁচ তারকা হোটেলসহ বিভিন্ন হোটেল রেস্টুরেন্ট বৈশাখী বুফেসহ বাংলা গানের আসরের আয়োজন করেছে।

হোটেল রেডিসন ব্লুতে পহেলা বৈশাখ রাতে বাংলা গানের কনসার্ট করবে ‘সোলস’। এছাড়া রেডিসনে উপজাতীয় সংস্কৃতির প্রদর্শন, বাউল গান, নৃত্য, বৈশাখী বুফেসহ বিভিন্ন আয়োজন রাখা হয়েছে।

এছাড়া নগরীর অভিজাত হোটেল পেনিনসুলা, হোটেল আগ্রাবাদসহ বিভিন্ন অভিজাত হোটেল নানা বৈশাখী আয়োজন রেখেছে ১৪ এপ্রিল সারাদিন।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন