আত্মসমর্পণের পর জমির লাভ
দেশের মানুষ সাংবিধানিক অধিকার থেকে বঞ্চিত-ডঃ শাহাদত

2
.

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, আমাদের রাষ্ট্রের অন্যতম মূল লক্ষ্য হচ্ছে গণতন্ত্রিক পদ্ধতিতে শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা। যেখানে সকল নাগরিকের জন্য আইনের শাসন, মৌলিক মানবাধিকার, এবং রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক সাম্য, বাক স্বাধীনতা ও সুবিচার নিশ্চিত হবে।

তিনি আজ ১৫ মে বুধবার দুপুরে কোতোয়ালী ৩৯ (৫)১২ মামলা এর জি.আর- ৫৫৫/১২. মামলায় বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ পূর্বক জামিন লাভের পর সংবাদিকের সাথে আলাপকালে উপরোক্ত কথা বলেন।

ডা.শাহাদাত হোসেন আরও বলেন, বিচার বিভাগ রাষ্ট্রের অতি গুরুত্বপপূর্ণ বিভাগ, জনগণের শেষ ভরসাস্থল। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাহী বিভাগ থেকে বিচার বিভাগ সম্পূর্ণ আলাদা। কিন্তু রাষ্ট্রের নির্বাহীগন যখন বিচার বিভাগের প্রতি কর্তৃত্ব পরায়ন হয়ে ওঠে তখন দেশের মানুষের আর বিচার পাওয়ার কোন জায়গা থাকে না। ফলে আজকে বিএনপি’র চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে তাই ঘটছে। তা না হলে দি ফারমার্স ব্যাংকের ১৬০ কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলায় রাশেদুল চিসতী জামিন পায়। কিন্তু ২ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ৬ কোটি টাকা হওয়ার পরও তিন তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি’র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন হয় না।

এ সময় আইনজীবীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সদস্য ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম চট্টগ্রাম এর সভাপতি এডভোকেট দেলোয়ার হোসেন, নগর বিএনপির সহ-সভাপতি সিনিয়র আইনজীবি এডভোকেট মফিজুল ভুঁইয়া, এডভোকেট সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, এডভোকেট নিজাম উদ্দিন, এডভোকেট মাহমুদুল আলম চৌধুরী মারুফ, এডভোকেট আব্দুল আজিজ প্রমুখ আইনজীবিবৃন্দ।

2 মন্তব্য

  1. চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া উপজেলার শোভনদন্ডি ইউনিয়নে তার বাড়ি। তার বাবা ইদ্রিস চৌধুরী শোভনদন্ডি ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি ছিল। তার বড় ভাই কবির আহমেদ চৌধুরী শোভনদন্ডি ইউনিয়ন বিএনপির উপদেষ্টা। তার মেজো ভাই গিয়াস উদ্দীন চৌধুরী পটিয়া উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক।
    পিতা ইদ্রিস চৌধুরী – শোভনদন্ডী ইউনিয়ন এর ২নং ওয়ার্ড বিএনপির সহ-সভাপতি ছিল ১৯৯১-৯৭ পর্যন্ত।
    তার মা ১৯৯১ সালে পিএনপির প্রার্থী শাহনেওয়াজ চৌধুরী মন্টুর পোলিং এজেন্ট ছিল শোভনদন্ডী কেন্দ্রের মহিলা বুথ এ।

    বিএনপির পরিবারের ছেলেটি তহিদুল ইসলাম চৌধুরী এবার সহ সভাপতি হয়েছে।

    তথ্যসূত্রঃ
    নাসির উদ্দিন, সাধারন সম্পাদক
    পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ

  2. বিএনপির এই সব মিথ্যাচার কখনো শেষ হবার নয় । বিএনপি জনসমর্থন হারিয়ে এখন খালি পাগলের সংলাপ দেয় । আর বিএনপি দলটা আসতে আসতে মিথ্যাচারের দলে পরিনত হয়ে যাচ্ছে । মিথ্যাচারের উপর ভর করে টিকে আছে এই বিএনপি