সাগরে ৬৫ দিন মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা
চট্টগ্রামে মৎস্য প্রতিমন্ত্রীর সামনে জেলেদের বিক্ষোভ

0
.

আগামী ২০ মে থেকে ৬৫ দিন বঙ্গোপসাগরে সামুদ্রিক মাছ আহরণে সরকারি নিষেধাজ্ঞার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরুর উপস্থিতি বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে জেলেরা।

এসময় নগরীর সার্কিট হাউজে বঙ্গোপসাগরে মাছ আহরণে সরকারি নিষেধাজ্ঞা নিয়ে সরকারী কর্মকর্তা ও প্রশাসনের সাথে মতবিনিময় সভা করতে এসে জেলেদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন মন্ত্রী।

.

আজ বৃহস্পতিবার (১৬ মে) দুপুরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে মতবিনিময় শেষে বের হওয়ার পথে জেলেদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন তিনি।

এসময় জেলেরা মন্ত্রীর সামনে ব্যানার নিয়ে শ্লোগান দিতে থাকে ‘মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা, মানি না মানবো না’। তারা মৎস্য প্রতিমন্ত্রী সাথে কথা বলার জন্য চেষ্টা করলেও পুলিশের বাধার কারণে কথা বলতে পারেনি।

এসময় চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন জেলেদের সাথে কথা বলেন। তিনি তাদের দাবীর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা বলবেন বলে জানান।

,

এদিকে সার্কিট হাউজের বাইরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন চলাকালে মন্ত্রী তার বৈঠকে বলেন, জেলেদের উদ্দেশ্যে বলেন, ৬৫ দিন বঙ্গোপসাগরে সকল প্রকার মৎস্য নৌযান কর্তৃক মৎস্য ও ক্রাস্টাশিয়ান্স আহরণ বন্ধের আগাম বার্তা আপনাদেরকে দিয়েছিলাম। তাই কষ্ট হলেও এ ৬৫ দিন মাছ আহরণ থেকে বিরত থাকুন। পরে এর সুফল মিলবে।

তিনি বলেন, আপনারা যে জাল দিয়ে মাছ ধরেন। সেই জাল দিয়ে ছোট মাছও উঠে আসে। যার কারণে এ মাছগুলো বড় হওয়ার সুযোগ পায় না।

জেলেদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, মাছ বড় হওয়ার জন্য সুযোগ দিতে হবে। মাছ যদি ডিম ছাড়তে না পারে, বাচ্চা ছাড়তে না পারে। তাহলে মাছের বিস্তার হবে না। এতে পরবর্তীতে আপনাদেরই সমস্যা হবে এবং দেশও ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

কোন মন্তব্য নেই