৫০ মণ অপরিপক্ক আম ধ্বংস, জরিমানা ৬ লাখ

0
ব্রেকিং নিউজ
  • *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

.

আমের উপরের অংশ কাঁচা। আবার কাটলেই দেখা যায় হলুদ রঙ ধারণ করেছে। যে কেউ প্রথম দেখাতেই মনে করতে পারেন পাকা আম। কাঁচা আম কেমিক্যাল দিয়ে পাকানো আঁটিও কাঁচা।

কাঁচা আম পাকিয়ে বাজারে বিক্রি করা হচ্ছে এমন অভিযোগে রাজধানীর মিরপুরের দিয়াবাড়ির আমের আড়তে অভিযান পরিচালনা করে র‍্যাব-৪ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানে ৮টি আমের আড়তের ৫০ মণ অপরিপক্ক পাকা আম বুলডুজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার (২৪ মে) সকাল ১১ টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত মিরপুরের দিয়াবাড়ি এলাকার আমের আড়তে চলে র‍্যাবের এ অভিযান।

অভিযানে ৫০ মণ আম গুড়িয়ে দেয়ার পাশাপাশি ৬টি আড়তকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। মিরপুর জোনের কৃষি কর্মকর্তা নুর জাহান ও র‍্যাব-৪ এর সদস্যদের সহায়তায় অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‍্যাব-৪ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিজাম উদ্দিন আহমেদ।

.

অভিযানে জামাল এন্টারপ্রাইজকে ৫০ হাজার টাকা, মিরপুর শাহ আলী ফার্মকে ৫০ হাজার টাকা, ভাই ভাই ট্রেডার্সকে ৫০ হাজার টাকা, দেওয়ান ট্রেডার্সকে ৫০ হাজার টাকা, আকাশ বাণিজ্য ভান্ডারকে ২ লাখ টাকা এবং সরদার ট্রেডার্সকে ২ লাখসহ ৬ প্রতিষ্ঠানকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

সরেজমিনে দেখা যায়, মিরপুর-১ সেকসনের দিয়াবাড়ি এলাকার ফলের আড়তে প্রায় ২০টি পাইকারি আমের আড়ত রয়েছে। এসবের প্রায় দশটি আড়তেই দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ঝড়-হাওয়ায় ঝরে পড়া কাঁচা আম কার্বাইড ও বিভিন্ন কেমিক্যাল মিশিয়ে আমকে পাকিয়ে বিক্রি করছে। এসব আম র‌্যাব কেটে দেখতে পায় যে আমের উপরের অংশ পাকা দেখালেও ভেতরের বিচি এখনও অপরিপক্ক। এসব অপরিপক্ক আমকে কেমিক্যাল দিয়ে পাকানোর কারণে এগুলো কেউ খেলে শরীর অসুস্থসহ প্রাণহানিও ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। যে কারণে এসব আম জব্দ বুলডুজার (রোড রোলার) দিয়ে গুড়িয়ে দিয়েছে।

.

র‍্যাব-৪ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘অভিযানে দেখা যায়, সরকার যে সময় নির্ধারণ করেছিল তার আগেই বাজারে আম বিক্রয় করা হচ্ছে কেমিক্যাল ও কার্বাইড দিয়ে আম পাকিয়ে। যেমন ল্যাংড়া আম জুনের ৬ তারিখে বাজারে আসার কথা। কিন্তু আজকেও বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। ব্যানানা ম্যাংগো, হিমসাগর এগুলো অনেক পরে আসার কথা থাকলেও এখনই বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। এসব আম কেটে দেখা যায় ভেতরের বিচি একেবারেই অপরিপক্ক। যা স্বাস্থ্যের জন্য খুব ক্ষতিকর। কেমিক্যাল ও বিষাক্ত কার্বাইড দিয়ে পাকানোর কারণে এগুলো কেউ খেলে প্রাণহানিও ঘটতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করেছে যে কাচা অপরিপক্ক আম তারা এখানে এনে পাকিয়েছে। এসব আম আমরা জব্দ করে গুড়িয়ে দিয়েছি। সেই সঙ্গে এসব অপরাধে ৬টি প্রতিষ্ঠানকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছে, ভবিষ্যতে এ ধরণের কাজ করলে তাদেরকে আরও অধিকার শাস্তি ভোগ করতে হবে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।’

কোন মন্তব্য নেই