বিভক্তিতে তৃনমূল নেতাকর্মী
হাটহাজারীতে বিএনপি দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি ইফতার মাহফিল

1
ব্রেকিং নিউজ
  • *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

.

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে ‌একই দিনে বিএনপি’র দুই গ্রুপের পৃথক ইফতার মাহফিলে দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়েছে উপজেলার দক্ষিন মাদার্শা ইউনিয়ন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

বিগত দিনে হাটহাজারীর প্রায় সব ইউনিয়ন কয়েকটি গ্রুপে বিভক্ত থাকলেও ব্যাতিক্রম ছিলো দক্ষিন মাদার্শা ইউনিয়ন বিএনপি। বিগত দিনে এই দুগ্রুপের বিভক্তি ছোটখাটো সভা সমাবেশ করে জানান দিলেও সিনিয়র দুগ্রুপের নেতার উপস্থিতিতে আজ ২৫শে রমজান গ্রুপিং প্রকাশ্য রূপ নিলো।

জানাগেছে হাটহাজারী বহুধারার গ্রুপ থেকে দীর্ঘদিন গ্রুপ মুক্ত থাকলেও বর্তমানে দক্ষিন মাদার্শা ইউনিয়ন বিএনপি দুধারায় বিভক্ত হয়ে এইচ এম ফজলুল হক ও ব্যারিষ্টার মীর হেলাল গ্রুপের দন্ধ এখন চরম পর্য়ায়ে। বিগতদিনে এ গ্রুপিং অতোটা প্রকাশ্যে না থাকলেও পবিত্র রমজানে ইফতার মাহফিলের মাধ্যমে দুগ্রুপ নিজেদের দলীয় শক্তির পরিচয় জানান দিচ্ছে।

.

আজ ২৫শে রমজান হাটহাজারীর বিএনপি’র সভাপতি এইচ,এম ফজলুল হকের অনুসারী দক্ষিন মাদার্শা বকুলতলা আলেয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করে।  ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি কাজি জাবেদ এর সভাপতিত্বে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিএনপি সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এইচএম ফফজলুল হক। ইউনিয়ন বিএনপির একাংশের সভাপতি গাজী শহীদ, সাধারন সম্পাদক, ইউপি সদস্য শাহজাহান বাদশা, এড মইনুদ্দীন সহ নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

‌অপরদিকে আকবরিয়া স্কুল এন্ড কলেজ হল রুমে বিএনপি’নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক ফখরুল হাসানের অনুষ্ঠানে পরিচালনায়, হাজাী শামশুর সভাপতিত্বে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নির্বাহী কমিটির সদস্য তরুন রাজনিতীবিদ ব্যারিষ্টার মীর হেলাল উদ্দীন, উপজেলা বিএনপি সাধারন সম্পাদক নুর আয়ুব খান, গিয়াস চেয়ারম্যান কারানির্যাতিত জেলা ছাত্রনেতা আকবর আলী, ওসমান গনী, যুবদল নেতা শাখাওয়াত শিমুল, নাছের হেজাজী প্রমুখ।

একইদিনে একই ইউনিয়নে দুই গ্রুপের দুটি ইফতার মাহফিলের বিষয়ে জানতে চাইলে ব্যারিষ্টার মীর হেলাল উদ্দীন পাঠক ডট নিউজকে বলেন- আমরা যেটা করেছি সেটা নির্বাচিত বৈধ কমিটির অনুষ্ঠান। আসলাম চৌধুরী দেয়া কমিটি। পাল্টা অনুষ্ঠান তিনি (ফজলুল হক) কিভাবে করেছে আমি জানি না। ওনার তো কোন কমিটিই নাই। উনি নিজে নিজেই আহবায়ক হয়ে একটি কমিটি ঘোষণা করেছে। কিন্তু তৃণশুলে সকল নেতা কর্মী আমাদের সাথে আছে। হেলাল বলেন, দক্ষিণ মার্দাশা ইউনিয়নের প্রতিটা কমিটি ভোটের মাধ্যমে করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে এসএম ফজলুল হকের মোবাইলে একাধিকবার ফোন কল দিলেও ওনি ফোন রিসিভ করেন নি।

প্রথম মন্তব্য