নোয়াখালীতে নেশাদ্রব্য খাইয়ে গৃহবধূকে গণধর্ষনের অভিযোগ

1
ব্রেকিং নিউজ
  • *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

.

জেলা প্রতিনিধি, নোয়াখালী:

নোয়াখালীর সদর উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়নে এক গৃহবধূ (৪০) কে নেশাদ্রব্য খাইয়ে গণধর্ষণে অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায়, আজ সোমবার সকালে ভিকটিমকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে রবিবার দিবাগত রাতে চরউরিয়া গ্রামের সুপারি বাগানের একটি টিনের ঘরে এ ঘটনা ঘটে। ভিকটিম ওই গ্রামের শরবতের নেছার বাড়ীর নজরুল ইসলামের স্ত্রী।

ভিকটিমের অভিযোগ, ঢাকার গুলশানের একটি অফিসে চাকরি করেন তিনি। তার গ্রামের বাড়ী চরউরিয়াতে। কয়েক মাস আগে স্থানীয় সিরাজ, শফিকুল, ফয়েজ ও সেলিমসহ কয়েকজন এলাকায় জমি ক্রয় করে দিবে বলে তার কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়েছিলো। এরপর থেকে জমি বুঝিয়ে দিতে বললে তারা নানা ধরনের তালবাহানা শুরু করে। ঈদের ছুঁটিতে বাড়ীতে আসার পর পুনঃরায় উল্লেখিত ব্যক্তিদের জমি বুঝিয়ে দিতে বলে সে। এর সূত্র ধরে রবিববার রাতে কাগজ পত্র বুজিয়ে দিবে বলে আজিজুল হকের সুপারি বাগানের একটি টিনের ঘরে তাকে ডেকে নিয়ে যায় তারা।

তাঁর অভিযোগ, ওই ঘরে তার জন্য বিস্কুট ও পানি দিয়ে নাস্তার ব্যবস্থা করে অভিযুক্তরা। তাদের দেওয়া বিস্কুট ও পানি খাওয়ার পর অচেতন হয়ে পড়েন তিনি। পরবর্তীতে সোমবার ভোর ৪টার দিকে জ্ঞান ফিরার পর নিজের সেলোয়ার ও কাপড় খোলা দেখতে পান তিনি। তার দাবী ওই ঘরে থাকা সিরাজ, শফিকুল, ফয়েজ, সেলিম, জয়নাল, লতিফ, আজিজুল হক, সামছুল হক, মিঠু ও দুলাল তাঁকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

সুধারাম মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল বাতেন জানান, গৃহবধূকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাকে গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে ভিকটিম অভিযোগ করেছেন। ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।

প্রথম মন্তব্য