রাতে খাওয়া সেরেই চট করে বিছানায়? আপনি নিজের বড় ক্ষতি করছেন!

0
.

নিয়মিত ওয়ার্ক আউট, স্বাস্থ্যকর খাওয়া-দাওয়া সবই তো করছেন! তবু ওজন নিয়ন্ত্রণে আসছে না কিছুতেই? আরও অনেকের মতো এটা যদি আপনারও সমস্যা হয়, তাহলে আগে ডিনারের সময়টা আপনার কখন, তা ভেবে দেখুন। রাতে যদি নিয়মিত ভাবে দেরি করে খাওয়ার অভ্যেস থাকে, তাহলে হাজার চেষ্টা করেও ওজন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারবেন না।

রাতে দেরি করে খাওয়া এবং খাওয়া সেরেই ঘুম। এর থেকে বড় অস্বাস্থ্যকর অভ্যেস বোধহয় আর কিছুই নেই। কারণ আমাদের বায়োলজিকাল ক্লকে সবকিছুর জন্য সময় নির্দিষ্ট রয়েছে। রাত ১১টায় যদি আপনি খান, তাহলে শরীর চমকে যাবে। কারণ এটা শরীরের ঘুমের সময়। সেই সময় শরীরে পুষ্টির সরবরাহ হলে বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্য়ঙ্গের পক্ষে তা মানিয়ে নেওয়া কঠিন। ফলে খাবার ঠিকমতো হজম হবে না।

এর ফলে শরীরের ইনসুলিন ও ব্লাড সুগারের মাত্রাতেও তারতম্য ঘটবে। এই কারণে যারা নিয়মিত ভাবে লেট নাইট শিফটে কাজ করেন, বেশিরভাগ সময়ে তাঁদের ভুঁড়ি দেখা যায়। আর রাতে খাওয়া ও ঘুমের মধ্যে অন্তত দুই ঘণ্টার ফারাক থাকা প্রয়োজন।

কোন মন্তব্য নেই