পায়রা বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বাংলাদেশির লাশ গুম, ৬শ জনের বিরুদ্ধে চীনা নাগরিকের মামলা

0
.

তৃতীয় দিনের মতো দেশের বৃহত্তর পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নির্মাণাধীন পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ বন্ধ রয়েছে। ফলে দশ হাজার শ্রমিক অলস সময় পার করছেন।

শ্রমিকরা জানান, গত মাসের বেতন-বোনাস না হওয়ায় অভাব অনটনে দিন কাটাচ্ছে তাদের। তাদের দাবি, কেউ মারা গেলে তাদের পরিচয়পত্র যেন ফেলে না দেয়, খাবারের মান উন্নত করার পাশাপাশি নিয়মিত বেতন-ভাতা দিতে হবে।

এদিকে, তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে এক চীনা নাগরিক নিহত হবার ঘটনায় কলাপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে চীনা নাগরিক ওং লিবিং বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। শুক্রবার বিকেলে কলাপাড়া থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুল ইসলাম মামলা গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ওসি আরও জানান, বাংলাদেশি ৫০০ থেকে ৬০০ জন অজ্ঞাত নাগরিককে আসামি করে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৮ জুন বিকেলে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নির্মাণাধীন পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের বয়লা ভবনের ১৭ তলা থেকে পড়ে নিহত হয় এক বাঙালি শ্রমিক। তার পরিচয়পত্র লুকিয়ে লাশ গুম করে ফেলে চীনা শ্রমিকরা। এ নিয়ে সংঘর্ষ বাধে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ ও বিসিপিসিএল এর প্রকল্পের পৃথক তিনটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। কমিটিগুলোকে আগামী সাত দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ঘটনার পর থেকে প্রশাসনের ঊচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে কয়েক দফা বৈঠক হয়েছে। বর্তমানে গোটা এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই