ক্লান্তিতে ক্ষমা চাই!

0
.

কাজের প্রয়োজনে অনেককেই দিনের বড় একটা সময় বাড়ির বাইরে কাটাতে হয়। ব্যস্ততায় কাজের চাপে, পর্যাপ্ত বিশ্রামের অভাবে প্রায়ই আমাদের শরীর ও মনে নেমে আসে ক্লান্তি, নষ্ট হয় কর্মস্পৃহা।

ছোট ছোট কিছু নিয়ম মেনে চললেই একটানা কাজের চাপ আর ক্লান্তি থেকে সহজেই রক্ষা পেতে পারি। আসুন জেনে নিই ক্লান্তি দূর করার সহজ কিছু উপায়:

লেবু পানি
শরীর-মন যখন আর চলতে সায় দেয় না, তখন টনিকের কাজ করবে একগ্লাস লেবু পানি। মূহুর্তেই শরীরের ক্লান্তি দূর করে ভেতর থেকে সতেজতা অনুভব করতে পারবেন।

ঘুম
সবচেয়ে বড় উপায় প্রয়োজনমতো ঘুম। রাতে ঠিকমতো ঘুম হলে সারা দিনই শরীর-মনে সতেজ ভাব থাকে, খুব সহজেই ক্লান্তি আসে না। তাই যত ব্যস্তই থাকুন, রাতে অন্তত সাত ঘণ্টা ঘুমানোর চেষ্টা করুন।

সকালের নাস্তা
পর্যাপ্ত পুষ্টিকর সকালের নাস্তা একদিকে শরীরে জোগান দেবে বাড়তি শক্তি, অন্যদিকে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতাকেও ঠিক রাখবে দীর্ঘসময়।

বিরতি
সব কিছুরই বিরতি প্রয়োজন হয়। টানা কাজ করলে শরীর-মনে ক্লান্তি আসতে বাধ্য। দীর্ঘ সময় অ্যাক্টিভ থাকতে কাজের মাঝে কিছুক্ষণের বিরতি দিন। একঘণ্টা কাজ করে পাঁচ মিনিটের জন্য হেঁটে আসুন অফিসের করিডোরে বা বারান্দায়।

লম্বা শ্বাস
মাঝে মাঝে খোলা বাতাসে লম্বা শ্বাস নিন। ক্লান্তি দূর হবে, এবার নতুন উৎসাহে নেমে পড়ুন কাজে।

চা-কফি
চা-কফি পান করার অভ্যেসটাও এসময় দারুণ কাজে দেবে। বিরতির সময় এক কাপ চা বা কফি পান করুন, দেখবেন মুহূর্তেই ফ্রেশ আর হালকা লাগবে। তবে প্রতিদিন তিন কাপ চা বা কফিতেই সন্তুষ্ট থাকুন।

কুশল বিনিময়
কাজের ফাঁকে সহকমীঁদের সাথে কিছুক্ষণের জন্য কুশল বিনিময় করতে পারেন। সহকর্মীর সাথে দু-একটা সৌজন্যমূলক কথাবার্তাও নতুন করে কর্মপ্রেরণা জোগাতে পারে।

পরিকল্পনা
পরিকল্পিতভাবে কাজ করলে এবং প্রয়োজনীয় সব কিছু হাতের কাছে গুছিয়ে রাখলে অনেক কষ্টসাধ্য কাজও সহজ হয়ে যায়।

নিয়মিত ব্যায়াম করলে শরীর-মন ভালো থাকে, অল্প কাজেই ক্লান্তিও আসে না।

কোন মন্তব্য নেই