ঘরের সৌন্দর্যের রহস্য লুকিয়ে পর্দায়

0
.

যদি আমরা লক্ষ্য করি তবে বুঝতে পারব, কোনো ঘরে প্রবেশ করার পর পর্দার রং দেখলেই মনে শান্তি লাগে, কোনো ঘরে প্রবেশ করলে মনে উৎসাহ জন্ম নেয় আবার কোনো ঘরে প্রবেশ করলে পর্দার রং দৃষ্টিকটূ বলে মনে হয়।

পর্দা ঘরের জন্য আব্রু রক্ষা, সৌন্দর্য বৃদ্ধি ও রুচির পরিচয় তুলে ধরে। ঘরে নতুন পর্দা কেনার সময় যে বিষয়গুলো লক্ষ্য রাখতে হবে:

• ঘরের ইন্টেরিয়রে সবচেয়ে মুখ্য বিষয় হচ্ছে পর্দা। যেমন গ্রীষ্মকালে আমরা ক্রিম, সাদা বা বাদামির মতো লাইট কালার ব্যবহার করতে পারি

• বাইরে যেহেতু অনেক ধুলা থাকে, তাই ঘরের জানলায় দু’টি স্তরে পর্দা টাঙানো উচিত। প্রথম স্তরের পর্দাটি হবে আকারে ছোট জানলার মাপে। এই পর্দা মূলত বাইরের ধুলা-বালি আটকে দিতে সাহায্য করবে

• অপরটি বড় মাপের। অন্দর সজ্জার জন্য এটি দেওয়ালের সঙ্গে ঝোলানো থাকবে

• রোলিং, ক্লিপিং, লুপিং, পেলমেটের নীচে চ্যানেল ও আইলেট দিয়ে পর্দা ঝোলাতে হবে

• পর্দা রেডিমেট বা কাপড় কিনে পছন্দমতো ডিজাইন দিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন

• তাঁত, সিল্ক বা পছন্দের কাপড় কেনার সময় খেয়াল রাখবেন বহরের মাপে। যেন মাঝখানে কম সেলাই দিতে হয়।

আড়ং, দেশাল, বিবিয়ানা, অঞ্জন’স, কে-ক্রাফট, যাত্রা, হোমটেক্সে জানালার পর্দা পাওয়া যায়। এসব ব্র্যান্ড ছাড়াও নিউমাকেট, এলিফ্যান্ট রোডসহ পুরো দেশেই সব শপিং মলে রয়েছে পর্দার দোকান।

সাইজ ও কাপড়ের মান অনুযায়ী প্রতি পিসের দাম পড়বে পাঁচ’শ থেকে পাঁচ হাজার টাকা।

কোন মন্তব্য নেই