সৌন্দর্যহানি করে ডাবল চিন

1
.

সৌন্দর্যের অনেকটাই হচ্ছে মুখে। মুখের নিচে ভারি চিন হলে দেখতে ভালো লাগেনা। আর এই ডাবল চিনের যুদ্ধ করছি অনেকেই। বিশেষ করে যাদের ওজন বেশি, তাদের মধ্যেই এই সমস্যা বেশি দেখা যায়।

তবে বাড়তি ওজন ছাড়াও জেনেটিক, বসা বা শোয়ার অভ্যাসের কারণেও হতে পারে ডাবল চিন। ডাবল চিন থেকে যারা সিঙ্গেল চিনে ফিরতে চান, তাদের জন্য দু’টি উপায় রয়েছে। প্রথমটা চিকিৎসা, অপারেশন বা লেজারের মাধ্যমে এটা কমিয়ে আনা যায়, তবে তা করতে যেমন খরচ অনেক বেশি, তেমনি নিরাপদ কিনা এটাও ভাবতে হয়।

আরেকটা পদ্ধতিতে প্রায় টাকা ছাড়া নিজেই কমাতে পারেন বিরক্তিকর ডাবল চিন। কীভাবে, জেনে নিন:

ডিমের সাদা অংশ
ডিমের সাদা অংশ ত্বককে টানটান করে। দুটি ডিমের সাদা অংশ, এক টেবিল চামচ মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি ভালো করে মুখে ও গলায় লাগান। ২০ মিনিট রেখে মুখ পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।

কোকো বাটার
কয়েক টেবিল কোকো বাটার মাইক্রোওয়েভে গরম করে নিন। এবার এটি আলতোভাবে কয়েক মিনিট ম্যাসাজ করুন গলায়। সকালে গোসলের আগে এবং রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এটি ব্যবহার দুইবার করুন।

চুইংগাম
চিনি ছাড়া চুইংগাম চিবোতে পারেন ইচ্ছেমতো। ডাবল চিন দূর হবে সঙ্গে দাঁতও হবে মজবুত।

এছাড়াও দ্রুত ফল পেতে নিয়মিত ব্যায়ামগুলো করুন:

মাথা পেছনের দিকে হেলাতে থাকুন। এবার মাথা ডান থেকে বাম দিকে, আরেকবার বাম থেকে ডান দিকে ঘোরান। প্রতি পাশে ৫ বার করে এই ব্যায়াম দিনে ৫ বার করুন।

সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে মাখা ঘাড়ের দিকে নিয়ে ছাদ বা আকাশের দিকে তাকান। ঠোঁট দিয়ে আকাশের দিকে চুমু দিন। এভাবে কিছুক্ষণ থাকুন। প্রতিদিন অন্তত ১০ বার এটা করুন।

মেরুদণ্ড সোজা রেখে কাঁধ থেকে মাথা ধীরে ধীরে বৃত্তাকারে ঘুরাতে থাকুন। দিনে ৫ বার প্রতিবারে ১০ বার করে।

আর সব সময় সোজা হয়ে বসুন, মাথা বেশি ঝুঁকে বসবেন না। প্রচুর পানি পান করুন, আর ঠাণ্ডা লাগানো যাবে না। অনেক সময় ফ্লুইড জমেও ডাবল চিন হতে পারে।