প্রতিদিন ১০০ কিশমিশ

0
.

শুধুমাত্র মিষ্টি খাবারেই কিশমিশের ব্যবহার রয়েছে। তবে মিষ্টি স্বাদের ছোট এই ফলটি শুধু খাবারের স্বাদই বাড়ায় না, এর রয়েছে অনেকগুলো পুষ্টিগুণ।

জানেন কি?

• চোখের জন্য আদর্শ খাবার। কিশমিশ দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়। কিশমিশে রয়েছে ভিটামিন এ ও বিটা ক্যারোটিন।

• ফ্যাটবিহীন ফাইবার সমৃদ্ধ কিশমিশ হজমশক্তি বাড়িয়ে কোষ্ঠাকাঠিন্য দূর করে। আমাদের শরীর থেকে টক্সিন বের করে দেয়।

• কিশমিশে পর্যাপ্ত পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম ও পটাশিয়াম রয়েছে। এগুলো অ্যাসিডিটি কমায়, কিডনির পাথর দূর করে ও হৃদরোগর ঝুকিঁ কমায়।

• জ্বর, ঠাণ্ডা ও অন্য সংক্রামক রোগ থেকে সুরক্ষা দেয়।

• ডায়াবেটিসে আক্রান্তরা কিশমিশ খাওয়ার বিষয়ে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নিতে হবে।

প্রতিদিন ১০০টি পর্যন্ত কিশমিশ খাওয়ার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। ১০০ কিশমিশ থেকে আমরা ১২৯ ক্যালরি ও ১.৩ গ্রাম প্রোটিন পেতে পারি।

কোন মন্তব্য নেই