উজ্জ্বল চুলের রহস্য

0
.

চুল হলো সৌন্দর্যের অন্যতম প্রতীক। কাউকে পর্যবেক্ষণে নিলে সবার আগে চোখ যায় তার চুলের দিকে। অন্যের ঘন, কালো রেশমি চুল দেখে মন খারাপ হয় কারো কারো।

কিন্তু আপনি কি জানেন কি করে যথাযথ পরিচর্যা করতে হয় চুলের? না জানা থাকলে জেনে তিন প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করে নিজের চুল সুন্দর করে তোলার উপায়-কৌশল।

১। অ্যালোভেরা

যা যা লাগবেঃ
• একটি অ্যালোভেরা
• দুই টেবিল চামচ পানি
• একটি স্প্রে বোতল

পদ্ধতিঃ
• সম্পূর্ণ অ্যালোভেরাকে টুকরো করে কেটে নিন। আঠালো অংশগুলো আলাদা পাত্রে তুলে নিন। আঠালো অংশে যদি হলুদ আবরণ থাকে তা নেবেন না।
• এখন এটিকে ব্লেন্ড করতে থাকুন যতক্ষণ না মিশে।
• মিশে গেলে, এরসাথে পানি নিয়ে এটিকে আরো ভালোভাবে ব্লেন্ড করুন।
• এবার এটি স্প্রে বোতলে ঢালুন।

ব্যবহারঃ
চুল ভালো করে ধুয়ে, শুকানোর পরে এটি চুলে স্প্রে করুন।
সপ্তাহে ৩-৪ বার ব্যবহার করুন।

অ্যালোভেরাতে রয়েছে এক ধরনের প্রোটিওলাইটি এঞ্জাইম যা ড্যামেজ স্কাল্পকে সংশোধন করতে সহায়তা করে। চুলের ভেতরের গ্রন্থিকোষকে করে তোলে স্বাস্থ্যবান এবং গোড়া শক্ত করে চুলের বৃদ্ধি বাড়িয়ে দেয়, সাথে চুল হয় আরো মসৃণ আরো সুন্দর।

২। গরম তেল

যা যা লাগবেঃ
• ২-৩ টেবিল চামচ নারিকেল তেল/ অলিভ ওয়েল
• উষ্ণ টাওয়েল

পদ্ধতিঃ
• ২-৩ টেবিল চামচ তেল ( চুলের দীর্ঘতা বুঝে) একটি কাপের ভেতর নিন। হালকা আঁচে কয়েক সেকেন্ড গরম করুন।
• গরম পানিতে ভিজিয়ে নিন টাওয়েলটিকে।

ব্যবহারঃ
• উষ্ণ তেল মাথায় ১৫ মিনিট ম্যাসেজ করুন। এরপর সমস্ত তেল চুলের আগা থেকে গোড়া অব্দি দিয়ে ৩০ মিনিট রাখুন।
• এবার উষ্ণ টাওয়েল দিয়ে চুলকে আবদ্ধ করুন। বেশ কিছুক্ষণ এভাবে রাখুন যতক্ষণ সম্ভব হয়।
• এরপর চুলে শ্যাম্পু করে কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।
• এটি সপ্তাহে অন্তত দুইবার করুন।

উষ্ণ তেলের ম্যাসেজ চুলকে আরো প্রাণিত করে তুলবে। চুলের রুক্ষতা কাটিয়ে চুল হবে শক্ত ও মসৃণ।

৩। ডিম
যা যা লাগবেঃ
• একটি আস্ত ডিম
• এক টেবিল চামচ অলিভ ওয়েল
• এক টেবিল চামচ মধু
• শাওয়ার ক্যাপ বা পলিথিন

পদ্ধতিঃ
• সমস্ত উপাদানগুলো এক সাথে মিশিয়ে ব্লেন্ড করুন।

ব্যবহারঃ
• মিশ্রণটিকে স্কাল্পসহ সম্পূর্ণ চুলে দিন।
• শাওয়ার ক্যাপ বা পলিথিন দিয়ে এবার চুল ঢেকে দিন যেনো কোনো ধূলিকণা প্রবেশ করতে না পারে। এভাবে ৩০ মিনিট রাখুন।
• এরপর চুল ভালো করে শ্যাম্পু করে কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।
• এটি সপ্তাহে ২-১ বার করুন।

ডিমে রয়েছে এক্সট্রা প্রোটিন যা চুলকে করে তোলে শক্তিশালী এবং চুলের জমিন করে তোলে অধিক মসৃণ। চুলে যোগায় পুষ্টি।

৪। পেঁয়াজ
যা যা লাগবেঃ
• পেঁয়াজের রস
• ল্যাভেন্ডার তেল

পদ্ধতিঃ
• পেঁয়াজের রস এবং তেলকে ভালো করে মিশিয়ে নিন।

ব্যবহারঃ
• মিশ্রণটিকে স্কাল্পে ম্যাসেজ করুন ভালো করে। আঙুল দিয়ে সুন্দর করে কিছুক্ষণ ম্যাসেজ করুন।
• ১০-১৫ মিনিট মাথায় রেখে দিন।
• এরপর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।
• সপ্তাহে অন্তত দুইবার ব্যবহার করুন।

পেঁয়াজে রয়েছে ফসফরাস, কপার, ফলিক এসিড ও ভিটামিন ই। এটি চুল প’ড়া রোধ করে চুলকে করে তোলে আরো শক্ত এবং মসৃণ। নতুন করে চুল গজাতে সহায়তাও করে।

কোন মন্তব্য নেই