পদ্মা সেতুতে “মানুষের মাথা” লাগবে বলে গুজব ছড়ানো হচ্ছে: কর্তৃপক্ষ

7
ব্রেকিং নিউজ
  • *প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করবেন ব্যারিস্টার সুমন

                    *প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করবেন ব্যারিস্টার সুমন

.

পদ্মা সেতু নির্মাণে এক লাখেরও বেশি মানুষের মাথা লাগবে বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সেতু প্রকল্প কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পদ্মা সেতু নির্মাণকাজ পরিচালনায় মানুষের মাথা লাগবে বলে একটি কুচক্রী মহল বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে অপপ্রচার চালাচ্ছে তা প্রকল্প কর্তৃপক্ষের নজরে এসেছে।

আমরা স্পষ্টভাবে বলতে চাই, এটি একটি গুজব। এর কোনো সত্যতা নেই। এমন অপপ্রচার আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। এ ধরনের গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য দেশবাসীকে অনুরোধ করা যাচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। মূল সেতুর ২৯৪টি পাইলের মধ্যে ২৯২টি বসানোর কাজ শেষ হয়েছে।

৪২টি পিয়ারের মধ্যে ইতিমধ্যে ৩০টি পিয়ারের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এ পর্যন্ত ১৪টি স্প্যান স্থাপন করা হয়েছে, যা এখন দৃশ্যমান।

৩০ জুন পর্যন্ত মূল সেতুর বাস্তব কাজের অগ্রগতি ৮১ শতাংশ, নদীশাসন কাজের অগ্রগতি ৫৯ শতাংশ এবং প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৭১ শতাংশ।

7 মন্তব্য

  1. ১৯৮৭ সা্লে, এরশাদের আমলে পুরো বাংলাদেশ জুড়ে এই ভাবেই গুজব ছড়িয়ে পড়ে ছিল। ঢোলকলমি গাছের পাতায় একটা পোকা হয় ,যা মানুষের শরীরে লাগলে বা কামড়ালে মানুষ মারা যায়।পেপারে-টিভির খবরে প্রচুর চিৎকার চেচামেচি। পত্রিকায়ও প্রতি দিন কোন জেলায় কত জনকে এই পোকা কামড়াল তার খবর আসছিল। অবশ্য এই পোকা গায়ে লাগার কারনে আতংকে সম্ভবত একজন মারা গিয়েছিল। পরবর্তিতে সরকার টিভিতে বিশেষজ্ঞদের দিয়ে দেখিয়ে দিলো সেই পোকা হাতে ডললে বা শরীরে লাগলে কিছু হয় না, আর এই পোকা কামরায়ও না।তখনকার দিনে ফেইসবুক, ইন্টারনেট ছিল না। থাকলে ঢোল কলমি গাছ বাংলাদেশ থেকে বিলুপ্তই হয়ে যেত।

  2. সারাদেশের মানুষ যেহেতু বিএনপি করে সেহেতু সবাই দলীয় লোক বলতে পারো। এরশাদের আমলে এর চেয়ে বেশি গুজব হয়েছিল। তখন আ লীগ করেছিল…?

  3. পর্দা সেতু যাদের দরকার সেই এলাকার মানুষের রক্ত মাথা নিয়ে পর্দা সেতু বানানোর দরকার অন্য জেলার মানুষের উপরে জুলুম না করলে ভালো হয় এই সরকার ক্ষমতা দখলের পর থেকে দেশের মানুষ অশান্তির মধ্যে আছে কোন জায়গায় জীবনের নিরাপদ নাই মৃত্যু চিন্তা নিয়ে চলতে রাস্তা ঘাটে