সিএমএইচ থেকে সেনা মসজিদে এরশাদের মরদেহ

4
.

জানাজার জন্য ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) থেকে হুসেই মোহাম্মদ এরশাদের মরদেহ ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট কেন্দ্রীয় মসজিদের মাঠে নেয়া হয়েছে। রবিবার (১৪ জুলাই) বাদ জোহর সেখানে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

দুপুর ১২টা ৪৮ মিনিটে লাশবাহী ফ্রিজিং অ্যাম্বুলেন্স ক্যান্টনমেন্ট কেন্দ্রীয় মসজিদে পৌঁছেছে। ১২টা ৪০ মিনিটে সিএমএইচ থেকে মরদেহ ক্যান্টনমেন্ট কেন্দ্রীয় মসজিদের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এসময় সেনাবাহিনীর গাড়িবহরও ছিল।

এরশাদের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি খন্দকার দেলোয়ার জালালী জানান, আগামীকাল সোমবার (১৫ জুলাই) সকাল ১০টায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় এরশাদের দ্বিতীয় জানাজা হবে। বেলা সাড়ে ১১টায় জাতীয় পার্টির বিজয়নগর-কাকরাইল আফিসে নেয়া হবে। বাদ আসর বায়তুল মোকাররমে তৃতীয় জানাজা। রাতে সিএমএইচের হিমঘরে লাশ রাখা হবে। রাতে সিএমএইচের হিমঘরে লাশ রাখা হবে। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকাল ১০টায় হেলিকপ্টারে করে রংপুরে নেওয়া হবে। রংপুর জেলা স্কুল মাঠে বা ঈদগাহ মাঠে বাদ জোহর চতুর্থ জানাজা হবে। বিকালে সেনাবাহিনী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

উল্লেখ্য, রবিবার (১৪ জুলাই) সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সংসদীয় বিরোধী দলীয় এই নেতা। গত ২৬ জুন থেকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন ছিলেন এইচএম এরশাদ। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর। তিনি রক্তে হিমোগ্লোবিন-স্বল্পতা, ফুসফুসে সংক্রমণ ও কিডনির জটিলতায় ভুগছিলেন। তিনি লাইফ সাপোর্ট ছিলেন।

১৯৩০ সালের ১ ফেব্রুয়ারি তারিখে তিনি রংপুর জেলায় দিনহাটায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি রংপুর জেলায় শিক্ষাগ্রহণ করেন এবং ১৯৫০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন।