তিতাসের মৃত্যু প্রসঙ্গে হাইকোর্ট
রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কেউ ভিআইপি নয়

3
ব্রেকিং নিউজ
  •  

       

                     

       

                     

       

                     

       

                     

       

                     

       

                     

       

.

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কেউ ভিভিআইপি নন বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ির এক নম্বর ফেরিঘাটে যুগ্ম সচিবের অপেক্ষায় প্রায় তিন ঘণ্টা ফেরি না ছাড়ায় বুধবার স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষতিপূরণ চেয়ে করা রিটের শুনানিতে আদালত এ মন্তব্য করেন।

বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে রিটের শুনানি হয়। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী জহির উদ্দিন লিমন।

এ সময় হাইকোর্ট বলেন, ভিআইপিরা শুধু নিরাপত্তা সুবিধা ভোগ করবেন।

তিতাসের মৃত্যুর ঘটনায় হাইকোর্ট অতিরিক্ত সচিবের পদমর্যাদার নিচে নন এমন ব্যক্তিদের দিয়ে তিন সপ্তাহের মধ্যে তদন্ত কমিটি গঠন করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশ দেন।

তিতাস ঘোষের মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারকে তিন কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশনা চেয়ে মঙ্গলবার হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়েছে।

পাশাপাশি যাদের অবহেলায় এ ঘটনা ঘটেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট আবেদনটি করেন মানবাধিকার সংগঠন ‘লিগ্যাল সাপোর্ট অ্যান্ড পিপলস রাইটস’র (এলএসপিআর) চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. জহির উদ্দিন মিলন।

বুধবার এ বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য হয়।

নড়াইল কালিয়া পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র তিতাস ঘোষ মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হলে তাকে খুলনার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা ভাড়া করা একটি আইসিইউ সম্বলিত অ্যাম্বুলেন্সে গত বৃহস্পতিবার তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির উদ্দেশে রওনা দেন পরিবারের লোকজন।

রাত ৮টার দিকে কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌ-রুটের মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি ১ নম্বর ভিআইপি ফেরিঘাটে পৌঁছায় অ্যাম্বুলেন্সটি। তখন কুমিল্লা নামে ফেরিটি ঘাটে যানবাহন পারাপারের অপেক্ষায় ছিল।

সরকারের এটুআই প্রকল্পের যুগ্ম সচিব আবদুস সবুর মণ্ডল পিরোজপুর থেকে ঢাকা যাবেন বলে ওই ফেরিকে অপেক্ষা করতে ঘাট কর্তৃপক্ষকে বার্তা পাঠানো হয়।

তিন ঘণ্টা অপেক্ষার পর ফেরিতে ওঠে অ্যাম্বুলেন্সটি। কিন্তু এর মধ্যে মস্তিষ্কে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়ে অ্যাম্বুলেন্সেই মারা যায় তিতাস। এ ঘটনা তদন্তে সোমবার (২৯ জুলাই) তিনটি কমিটি গঠন করা হয়।