চবিতে সংঘর্ষের পর লাগাতার অবরোধ প্রত্যাহার

0
.

দিনভর সংঘর্ষ ক্লাশ বর্জন, ট্রেনের শাটল ট্রেনের হোসপাইপও কেটে দেয়া চালককে অপহরণ ও ক্যাম্পাসে শিক্ষক বাসে সুপার ব্লু লাগিয়ে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়সহ নানা ঘটনার পর রাতে এসে অবরোধ প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে বিবাদমান চবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের একাংশ।

চবির উপাচার্যের (দায়িত্বপ্রাপ্ত) আশ্বাসে অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানান, ছাত্রলীগের গ্রুপ বিজয়। এর আগে বিপক্ষ সিএফসি গ্রুপের নেতা ও শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেলকে বহিষ্কারের দাবিতে ক্যাম্পাসে লাগাতার অবরোধের ডাক দেয়।

বিজয় গ্রুপের নেতা ও সাবেক সহসভাপতি শাহরিয়ার সৌরভ সাংবাদিকদের বলেন, উপাচার্য ম্যাম আমাদের দাবিগুলো তদন্তের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থা নেওয়ার পূর্ণ আশ্বাস দিয়েছেন। তাই আমরা আমাদের অবরোধ প্রত্যাহার করছি।

তিনি বলেন, আমরা ম্যামকে বলেছি পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আমাদের সিনিয়র নেতৃবৃন্দের উপর ছাত্র নামধারী সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে। তাদের শাস্তির দাবিতে আমাদের অবরোধ ছিল। ভবিষ্যতে যেন সন্ত্রাসীরা এ দুঃসাহস করতে না পারে আমরা সে দাবি জানিয়েছি। তিনি আমাদের কথাগুলো আন্তরিকভাবে নিয়েছেন।

রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার সাংবাদিকদের বলেন, ছাত্রদের ব্যক্তিত্বের সংঘাতের কারণে ঝামেলা হয়েছিল। তারা যে অভিযোগ দিয়েছে তদন্ত সাপেক্ষে সমাধান করা হবে। হল দখলের বিষয়টি অস্বীকার করে তিনি বলেন, যে যার হলে আছে, সে তার হলেই থাকবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম চলবে বলে তারা আশ্বাস দিয়েছে।

উল্লেখ্য চবিতে দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের বিরোধের জেরে শনিবার মধ্যরাতে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

শনিবার (১ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে এ ঘটনার জের ধরে রবিবার সকালে একপক্ষ শাটল ট্রেন চালককে অপহরণ করেছে। এতে করে বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়া দুর্ভেগে পড়েছে হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী। পরে অবশ্য চালককে ছেড়ে দিয়েছে। তারা আগের রাতে হামলার জন্য বিচার দাবী করে অনির্দ্দিষ্ট কালের জন্য অবরোধ ডাকে।  এর মধ্যে বেলা আড়াইটার দিকে দুই গ্রুপ আবার সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

জানাগেছে দুইপক্ষই শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরীর অনুসারী বলে।

অবরোধ প্রত্যাহার হওয়ায় সোমবার (০২ সেপ্টেম্বর) থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল ট্রেন, শিক্ষক বাস চলাচল করবে এবং পূর্বনির্ধারিত ক্লাস পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান প্রক্টর প্রনব মিত্র চৌধুরী।

কোন মন্তব্য নেই