চীনবিরোধী টানা বিক্ষোভে উত্তাল হংকং, পুলিশের গুলি

0
.

হংকং-এর চলমান বিক্ষোভে তাজা গুলি চালিয়েছে পুলিশ। চীনের জাতীয় দিবস উদযাপনের দিন এই গুলি চালানো হয়েছে। এতে এক তরুণ আহত হয়েছেন। হংকং-এ টানা চার মাসের আন্দোলনে এই প্রথমবারের মতো তাজা গুলি চালানো হয়েছে।

চীনের জাতীয় উদযাপনের দিনটিকে শোক দিবস হিসেবে পালন করছে হংকং-এর বাসিন্দারা। স্থানীয় সাংবাদিক ইলাইন ইউ বলেন, বেইজিং যখন উদযাপনে ব্যস্ত, তখন শোকাহত হংকং। হংকংয়ের বিক্ষোভকারীরা চীনের জাতীয় দিবসে শোক পালন করছে। ব্যানার নিয়ে তারা উইঘুর ও তিব্বতিদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করছে।

এদিন আন্দোলন অন্যান্য দিনের চেয়ে সহিংস হয়ে ওঠে। বিক্ষোভকারীরা পেট্রলবোমাও নিক্ষেপ করে বলে দাবি করেছে পুলিশ। কর্মকর্তারা জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রথমে টিয়ার গ্যাস ও জলকামান ব্যবহার করা হয়। পরে অবস্থা বেগতিক দেখে ১৮ বছর বয়সী এক তরুণের কাঁধে গুলি করে পুলিশ। এছাড়া সতর্কতামূলকভাবেও কয়েক রাউন্ড গুলিও চালানো হয়।

গুলিবিদ্ধ ওই ব্যক্তি কেমন আছে এখনও তা জানা সম্ভব হয়নি। ইতোমধ্যে এই ঘটনার সমালোচনা করেছে যুক্তরাজ্য।

এক সময়কার ব্রিটিশ কলোনি হংকং এখন চীনের অংশ। ‘এক দেশ, দুই নীতি’র অধীনে কিছু মাত্রায় স্বায়ত্তশাসন ভোগ করছে হংকং। অঞ্চলটির নিজস্ব বিচার ও আইন ব্যবস্থা রয়েছে, যা মূল চীনের চেয়ে ভিন্ন। গত ৯ জুন থেকে সেখানে কথিত অপরাধী প্রত্যর্পণ বিল বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ শুরু হয়। আন্দোলনকারীদের আশঙ্কা, ওই বিল অনুমোদন করা হলে ভিন্নমতাবলম্বীদের চীনের কাছে প্রত্যর্পণের সুযোগ সৃষ্টি হবে। লাখো মানুষের উত্তাল গণবিক্ষোভের মুখে এক পর্যায়ে ওই বিলকে ‘মৃত’ বলে ঘোষণা দেন হংকংয়ের চীনপন্থী শাসক ক্যারি ল্যাম। তবে এতে আশ্বস্ত হতে না পেরে বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে সেখানকার নাগরিকরা। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে হংকংয়ের স্বাধীনতা, বৃহত্তর গণতন্ত্র ও চীনের নিযুক্ত নির্বাহী প্রধানের পদত্যাগের দাবি।

কোন মন্তব্য নেই