দুর্গাপূজায় চারদিনের সরকারি ছুটি ঘোষণাসহ ৬ দফা দাবি

1
.

শারদীয় দুর্গাপূজায় চারদিনের সরকারি ছুটি ঘোষণাসহ ৬ দফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ চট্টগ্রাম জেলা শাখা তথা চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় পূজা উদ্যাপন পরিষদ।

বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) নগরীর প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানান পরিষদের নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার দেব।

সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন সভাপতি শ্যামল কুমার পালিত।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী বিজয়া সম্মিলন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট নিতাই প্রসাদ ঘোষ, অ্যাডভোকেট চন্দন বিশ্বাস, বিশ্বজিৎ পালিত, সুমন দে, কল্লোল সেন, অলক মহাজন, উত্তম শর্মা, বিপুল কান্তি দত্ত, বিজয় কৃষ্ণ বৈষ্ণব প্রমুখ।

লিখিত বক্তব্যে অসীম কুমার দেব বলেন, এ বছর চট্টগ্রাম জেলার ১৫টি উপজেলায় সর্বজনীন ১ হাজার ৫১৬টি ও পারিবারিক ৩৫৯টিসহ মোট ১ হাজার ৮৭৫টি পূজাম-পে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পাঁচদিনের এই দুর্গোৎসবই হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। অথচ এত বড় উৎসবে সরকারি ছুটি শুধু একদিন। এ কারণে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা পূজার পুরো সময়টুকু নিজেদের মনের মতো করে উদযাপন করতে পারেন না। তাই সরকারি ছুটি বাড়িয়ে চারদিন করা হলে তা সবার জন্য অনেক সুখকর হবে।

সেই সঙ্গে সরকারি উদ্যোগে দেশের প্রত্যেক উপজেলায় একটি মডেল মন্দির নির্মাণ, শ্রীশ্রী চ-ীর উদ্ভবস্থল চট্টগ্রামের বোয়ালখালীর কড়লডেঙ্গা পাহাড়ের মেধস আশ্রমে যাতায়াতের রাস্তা প্রশস্থকরণ ও প্রয়োজনীয় উন্নয়ন করা, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট বাতিল করে জাতীয় বাজেটে বরাদ্দের মাধ্যমে হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য পৃথক ফাউন্ডেশন গঠন করা, দেবোত্তর সম্পত্তি পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণে আইন প্রণয়ন করা, অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পণ আইনের যথাযথ দ্রুত বাস্তবায়ন, বিজয়া দশমীতে অনাথ আশ্রম ও জেলখানায় উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করাসহ সরকারি দপ্তরে বিজয়া পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান আয়োজনের দাবি জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে। প্রতিমা নিরঞ্জনে প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীকে পরিহার করার জন্য পূজার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান নেতৃবৃন্দ।

প্রথম মন্তব্য