খুলনায় প্রতিমা বিসর্জনের দিন অতিরিক্ত মদপানে ৫ জনের মৃত্যু

1
.

বিজয়া দশমীতে দুর্গা প্রতিমা বিসর্জন দেয়ার পর অতিরিক্ত মদ পান করে ৫ যুবকের মৃত্যু হয়েছে। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (৯ অক্টোবর) সকাল থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে তাদের মৃত্যু হয় বলে জানা গেছে।

মৃতরা হলেন, নগরীর গল্লামারী এলাকার নরেন্দ্র দাসের ছেলে প্রসেনজিৎ দাস (২৯), ভৈরব টাওয়ার এলাকার মানিক বিশ্বাসের ছেলে রাজু বিশ্বাস (২৫), তাপস (৩২), নগরীর গ্লাক্সোর মোড় এলাকার প্রদীপ শীলের ছেলে সজল শীল (২৬) এবং রপসা উপজেলার রাজাপুর এলাকার পরিমল।

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে বিভিন্ন সময়ে দায়িত্বরত চিকিৎসকরা জানান, বুধবার সকাল থেকে তারা কর্তব্যরত থাকা অবস্থায় মদ পানে অসুস্থ হয়ে উক্ত ৫ ব্যক্তি হাসপাতালে আসে। পরে তাদের মৃত্যু হয়। চিকিৎসকরা জানান, অতিরিক্ত মদ পানের কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার রাতে দুর্গা পূজার বিসর্জন উপলক্ষে একটু আনন্দ ফুর্তি করতে মদ পান করে। আর মদ পান অতিরিক্ত হওয়ায় সেটি তারা সহ্য করতে পারেনি। অসুস্থ হয়ে তাদের মৃত্যু হয়।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের (কেএমপি) ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (ডিসি) এহশান শাহ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ২ ব্যক্তি মদ পানে মারা গেছে। অন্য তিনজন কিভাবে মারা গেছে সেটি তিনি নিশ্চিত নন উল্লেখ করে বলেন, ধারণা করা হচ্ছে অতিরিক্ত মদ পান করে তাদের মৃত্যু হয়েছে। তাদের হার্টেও সমস্যা ছিল। লাশের ময়না তদন্ত হলে কারণ জানা যাবে।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. মঞ্জুর মোর্শেদ জানান, বুধবার দুপুর পৌনে সোয়া ২টায় এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, অতিরিক্ত মদ পানে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে তাদেরকে মৃত অবস্থাতেই হাসপাতালে আনা হয়েছে বলে শুনেছি।