আবরার হত্যার প্রতিবাদে রাজধানীতে ঐক্যফ্রন্টের শোক র‌্যালিতে পুলিশের বাধা

3
.

বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে শোক র্যালির আয়োজন করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। আজ সোমবার বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের নিচলায় আবরার হত্যার প্রতিবাদে শোকসভা ও র‌্যালি আয়োজন করে সরকার বিরোধী এ জোট।

শোকসভা শেষে র্যালি নিয়ে বের হলে প্রেস ক্লাবের মোড়েই র‌্যালিটি আটকে দেয় পুলিশ। পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব। তিনি বলেন, আজকে দেশের মানুষকে বন্দি করে রেখেছে এই অবৈধ সরকার। কেউ কোন কথা বলতে পারে না। সভা সমাবেশ করতে পারে না। শোক র্যালি করতে পারে না। কিন্তু সরকার দলের লোকেরা ঠিকই সব কিছুই করতে পারে।

বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার হত্যার প্রতিবাদে আমরা একটি শোক র‌্যালি করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু সেটিও করতে দেয়া হল না। এই সরকারে উদ্দেশ্যে আমি বলতে চাই। আপনারা যা করছেন সেটা ঠিক করছেন না। এখনো সময় আছে সোজা হয়ে যান। নয়তো আপনাদের উপর আল্লাহর গজব পড়বে।

3 মন্তব্য

  1. বর্তমানে আবরার হত্যা নিয়ে জামায়াত-শিবির এবং বিএনপির সাথে ঐক্যফ্রন্ট ও নোংরা রাজনীতি শুরু করে দিয়েছে। যেখানে বুয়েটের প্রত্যেকটি দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে এবং আবরার হত্যার সাথে জড়িত প্রত্যেককে আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদান করা হচ্ছে। তারপরেও যারা নানান কর্মসূচির মাধ্যমে উক্ত বিষয়েটার সুযোগ নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে তাদেরকে অবশ্যই বাধা দেওয়া প্রয়োজন। কারণ তারা এগুলোর মাধ্যমে দেশের শান্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছে।

  2. বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের নেতারা এখন দেশের মধ্যে যে ঘটনায় হোক সে ঘটনাটিকে টেনে লম্বা করার চেষ্টায় থাকেন। আবরারের বাবা বলেছেন তার সন্তানের হত্যা নিয়ে কিছু মহল রাজনীতি করার চেষ্টা করছে আর তিনি যে একথাটা বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন সেটা আমরাও বুঝতে পেরেছিলাম। আবরার হত্যার সঙ্গে যে সকল দাবি ছিল এবং যারা ঘটনার সঙ্গে যুক্ত ছিল তাদেরকে আটক করার পরেও অযৌক্তিকভাবে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা এ হত্যা ঘটনা নিয়ে রাজনীতি করার জন্যই মূলত এ কর্মসূচিগুলো করছে। তারা দেশের জনগণকে নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে দাঁড় করানোর চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

  3. লোকসমাগম হয়নি ১০০জন, কিন্তু আপনারা এই শোক র‍্যালীকে জনসমাগমের ঢল মনে করে সাধারণ মানুষের চলাচলের যাত্রাকে বিঘ্নিত করার চেষ্টা করেছেন তাই এই লোক দেখানো র‍্যালিতে বাধা দিয়ে পুলিশ উচিত কাজই করেছে। আবরার হত্যার বিচারের দাবিতে সকল হত্যাকারীদের বিচারের আওতায় আনা হয়েছে সুতরাং এটা নিয়ে আন্দোলন করে নোংরা রাজনীতি করার কিছু দেখছি না।