৪৫ বছরে ৬০ বিয়ে করে ধরা আবু বক্কর!

1
.

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় আবু বক্কর (৪৫) নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ২৫ বছরে ৬০ বার বিয়ে করার অভিযোগ উঠেছে।

গত শনিবার (২ নভেম্বর) রাতে ৬০ নম্বর স্ত্রীর করা মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। বক্কর উপজেলার গোয়ালেরচর ইউনিয়নের সভারচর গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বক্কর এলাকায় “চিটার বক্কর” নামে পরিচিত। ২০ বছর বয়সে তিনি প্রথম বিয়ে করেন। দেশের বিভিন্ন জেলায় ধর্ম আত্মীয় পাতিয়ে ব্যবসা, চাকরি, অবিবাহিত, স্ত্রী মারা গেছে এসব কথা বলে ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে ৬০ বার বিয়ে করেছেন। এ সময় ওই নারীদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছেন মোটা অংকের টাকা।

সব শেষে নেত্রকোনা পূর্বধলা উপজেলায় ৬০ নম্বর স্ত্রী রোজী খানমের করা মামলায় ধরা পড়েন বক্কর।

পূর্বধলা থানায় করা ওই মামলার সূত্রে জানা গেছে, রোজী খানমের আত্বীয়ের সঙ্গে পূর্ব পরিচিত হওয়ায় ওই এলাকায় যাতায়াত করতেন বক্কর। তিনি নিজেকে একটি ওষুধ কোম্পানির জেলা এরিয়া ম্যানেজার পরিচয় দিতেন। পরে অবিবাহিত পরিচয়ে গত আগস্টে ভুয়া নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে রোজিকে বিয়ে করেন। সেই থেকে রোজির বাড়িতেই বসবাস করতেন বক্কর। এ সময় তার পরিবারের কাছে ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করেন। এতে রোজীর পরিবার অপারগতা প্রকাশ করে। পরে বক্কর কৌশলে তার শ্যালককে ওষুধ কোম্পানির চাকরি দেওয়ার কথা বলে শ্বশুরের কাছ থেকে ৮০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যান এবং যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। এ সময় রোজীর পরিবার খোঁজ নিয়ে জানতে পারে বিয়ের নামে প্রতারণা করেছেন বক্কর।

জামালপুরে আবু বক্কর (৪৫) নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ২৫ বছরে ৬০ বার বিয়ে করার অভিযোগ উঠেছে। ঢাকা ট্রিবিউন

এ বিষয়ে বক্কর জানান, ৬০ বার বিয়ে করলেও তিনি সাত সন্তানের জনক। শুধু টাকার লোভে বিয়ে করেছেন। টাকা পেলেই ফেলে এসেছেন স্ত্রীদের। নিজ উপজেলা ইসলামপুরের ঠিকানা তিনি কখনই ব্যবহার করতেন না। বর্তমানে নিজ বাড়িতে প্রথম স্ত্রী সাজেদা বেগমসহ দুই স্ত্রী ও সাত সন্তান রয়েছে।

ইসলামপুর থানা পরিদর্শক (তদন্ত) আনছার আলী জানান, প্রতারণা করে বক্কর প্রায় ৬০ বার বিয়ে করেছেন। তিনি নিজেই স্বীকার করেছেন। তাকে আটক করে ওই থানায় পাঠানো হয়েছে।

প্রথম মন্তব্য