বায়তুশ শরফে “শানে মোস্তফা (স.)” গজলের আসর সম্পন্ন

0
.

বায়তুশ শরফ আন্জুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ এর উদ্যোগে ৪ দিনব্যাপি পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সঃ) উদ্যাপন উপলক্ষে “শানে মোস্তফা (সঃ)” নাত ও গজলের আসর শুক্রবার (৮ নভেম্বর) বাদে মাগরিব বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে বায়তুশ শরফের পীর ছাহেব আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মোহাম্মদ কুতুব উদ্দিন সভাপতিত্বে ও মজলিসুল উলামা বাংলাদেশের মহাসচিব মাওলানা মামুনুর রশিদ নূরী এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মোহাম্মদ কুতুব উদ্দিন বলেন- “শানে মোস্তফা (স.) চর্চা করা নবী প্রেমের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত” । সুষ্ঠু, সুন্দর ও কল্যাণময় সমাজ গঠনে যেমন মানবতাবাদী পরিচ্ছন্ন সাহিত্য-সংস্কৃতি অপরিহার্য। হুজুরে করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সৌন্দর্য এতই পূর্ণ তাতে কোন অপূর্ণতার কল্পনাও করা যায় না। তিনি এমন পুষ্প যাতে কোন কাঁটা নেই। তিনি এমন আলো যাতে কোন ধোঁয়া নেই । দো-জাহানের যত কল্যাণ,আখেরাতের যত শান্তি, মন-মানষিকতার যত স্থিতি, এক কথায় দুনিয়া আখেরাতের যতসব কল্যাণ সব তাহার কাছেই ্এবং তাহার মাঝেই পাওয়া যায়। এমন কোন নেয়ামত নেই যা হুজুর (সঃ) এর দরবারে নেই। হ্যাঁ একটি জিনিস নেই! আর তা হলো “না”শব্দ। অর্থাৎ কাউকে ফিরিয়ে দেয়া, বিমুখ করা এই দরবারে নেই।

.

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক ও ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় ঢাকা ্এর উপাচার্য প্রফেসর ড. আহসান উল্লাহ (আহসান সাইয়্যেদ) বলেন- মদিনা কেন্দ্রিক ইসলামি সাহিত্যের যে যাত্রা শুরু হয়, তা ইসলামি দাওয়াতের সাথে সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়ে। পৃথিবীর যে কোন অঞ্চলের যে কোন ভাষার মানুষ ইসলাম গ্রহণ করেছে, তাদের কবি-সাহিত্যিকরা তাদের প্রতিভাকে ইসলামের সেবায় নিয়োজিত করেছেন। এভাবে ইসলামি সাহিত্যও আন্তর্জাাতিক রূপ পরিগ্রহ করেছে।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট ইসলামি চিন্তাবিদ আল্লামা কাজী নাছির উদ্দীন। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মীর মোহাম্মদ আনোয়ার আহমদ, সাধারণ সম্পাদক আল্হাজ্ব লুৎফুল করিম, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সঃ) উদযাপন কমিটি আহ্বায়ক মাওলানা ওবাইদুল্লাহ, যুগ্ম আহ্বায়ক হাফেজ মুহাম্মদ আমান উল্লাহ।

আরো উপস্থিত ছিলেন, খতিব মাওলানা নুরুল ইসলাম, শাহজাদা মাওলানা আব্দুল হাই নদভী, শাহজাদা মাওলানা মুহাম্মদ ছলাহ্ উদ্দীন বেলাল, সাবেক ইসলামিক ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক- মাওলানা আবুল হায়াত মোহাম্মদ তারেক, ডা. আনোওয়ার হোসেন, মাওলানা কাজী জাফর আহমদ, মাসিক দ্বীন দুনিয়ার সম্পাদক- আলহাজ্ব মুহাম্মদ জাফর উল্লাহ, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এ.বি.কে. মহিউদ্দীন শামিম, আলহাজ্ব নুরুল ইসলাম, আলহাজ্ব মোজাম্মেল হক, আল্হাজ্ব মিফতাহুল হুদা, হাজী আহমদ হোসাইন, মাওলানা হাফেজ নিজাম উদ্দীন, মাওলানা কাজী শিহাব উদ্দীন,শাহজাদা মোহাম্মদ আব্দুল কাইয়ুম, মাওলানা আব্দুশ শাকুর, মাওলানা নুরুদ্দীন মাহমুদ,মোঃ এহছানুল হক মিলন প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন-মাওলানা আব্দুশ শাকুর।

শানে মোস্তফা (সঃ) গজলের আসরে দেশে বিদেশের বহু উর্দূ, ফারসী, বাংলা গজলের শায়েরের পদচারণায় বাদ মাগরিব থেকে বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণ উৎসব মুখর হয়ে উঠে। শায়েরদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মাওলানা হারুন কাদেরী, মাওলানা আশরাফ বিহারী, আমীর আলী শরিয়তপুরী, আবুল কালাম আজাদ, আবু দাউদ শাহ্ শরীফ, শাহেদুল করিম খান, শোয়াইব বিন হাবীব, মাওলানা আবদুন নূর, ইমাদ উদ্দিন সাআদ প্রমুখ। এ বছর বায়তুশ শরফ আন্জুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে তিনজন গুণীব্যক্তিকে সংবর্ধনা দেয়া হবে এবং একজন প্রয়াত গুণীকে স্মরণ করা হবে।

কোন মন্তব্য নেই