হাটহাজারী আ’ লীগ: মো. আলী সভাপতি ও সোহরাব হোসেন সা. সম্পাদক
যুবলীগ, ছাত্রলীগ স্বেচ্ছাসেবক লীগের পর আ. লীগেও চলবে শুদ্ধি অভিযান-মোশাররফ

0
.

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনার এক কথা, উনি কোন দুষ্কৃতিকারী থাকতে দেবেন না। উনি যুবলীগ ঠিক করেছেন, ছাত্রলীগ ঠিক করেছেন, কৃষকলীগ ঠিক করেছেন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ঠিক করেছেন, আওয়ামী লীগেও তিনি শুদ্ধি অভিযান চালাবেন।

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখাকালে তিনি এসব কথা বলেন।

রবিবার (১ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় হাটহাজারী পৌর সদরের হাটহাজারী পার্বতী সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এ বিএম ফজলে করিম এমপি।

উপজেলা আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সভাপতি এডভোকেট মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাউজানের উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হক বাবুল, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ইউনুছ গণি চৌধুরী, সদস্য আলহাজ্ব মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী ও জাফর আহমদ সহ নেতৃবৃন্দগণ।

দ্বিতীয় অধিবেশনে কাউন্সিলররা সরাসরি ভোটে অংশগ্রহণ করেন। ভোট শেষে এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এডভোকেট মোহাম্মদ আলীকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সোহরাব হোসেন চৌধুরী নোমান এর নাম ঘোষণা করেন

এদিকে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন চলাকালে সংঘর্ষ, ধাওয়া- পাল্টা ধাওয়া ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষের ঘটনায় চারজন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

সুত্র জানায়, সম্মেলনে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী বক্তব্য  দেয়ার সময় তাঁর সমর্থকদের বাসায় অযাচিত পুলিশী তল্লাশী এবং গ্রেফতারের বিষয় তুলে ধরেন এবং গ্রেফতারকৃতদের অনতিবিলম্বে ছেড়ে দেয়া না হলে সম্মেলন বয়কটের ঘোষণা দেন। এরপর অন্যান্য অতিথিদের বক্তব্য চলাকালে মঞ্চের পাশে দাড়ানো কিছু যুবক হঠাৎ বিনা উসকানিতে উপস্থিত কাউন্সিলরদের দিকে চেয়ার ছুঁড়তে শুরু করে।

এসময় উপস্থিত নেতা কর্মীরা পরস্পর সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও চেয়ার ভাংচুরে লিপ্ত হয়। উত্তেজিত নেতাকর্মীরা সভাস্থলের শতাধিক চেয়ার ভাঙচুর করে। সংঘর্ষে অন্তত চার জন নেতা কর্মী আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

এসময় হাটহাজারী থানার পরিদর্শক (অপারেশন) তৌহিদুল করিম এবং পরিদর্শক (তদন্ত) রাজীব শর্মার নেতৃত্বে শতাধিক পুলিশ সংঘর্ষকারীদের ধাওয়া করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

কোন মন্তব্য নেই