খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ছাত্রদলকে শপথ নিতে হবে-ডা. শাহাদাত

0
.

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলকে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির শপথ নিতে হবে। বিএনপির চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে এই সরকার অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় বশবর্তী হয়ে বন্দি করে রেখেছে। গণতান্ত্রিক ও রাজনৈতিক কর্মকান্ড থেকে বেগম খালেদা জিয়াকে দূরে রেখে বিনাভোটে, বিনা বাধায়, বন্দুকের নলের মাধ্যমে অনির্দিষ্ট কাল ক্ষমতায় তাকার জন্যই তাঁকে বন্দি রেখেছে।

তিনি আজ ১ জানুয়ারী বুধবার জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিগত ২০১৪ সালের ৫ জানুয়রী নিয়ম রক্ষার নির্বাচনের দোহায় দিয়ে ভোটারবিহীন নির্বাচনে ক্ষমতা দখলকারী আওয়ামীলীগ চলচাতুরীর মাধ্যমে দীর্ঘ ৫ বছর ক্ষমতায় ঠিকে থাকতে অপকৌশলের মাধ্যমে বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, হামলা, নির্যাতন নিপীড়ন চালিয়েছে এবং গুম, খুন হয়েছে অসংখ্য নেতাকর্মী। এই অবৈধ সরকার বিগত ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর প্রহসনের নির্বাচনে মধ্য রাতের অন্ধকারে ভোট ডাকাতীর মাধ্যমে জনগণের ভোট ডাকাতী করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসেছে।

ডা. শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস আছে। দেশের যে কোন ক্রান্তিলগ্নে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল নেতৃত্ব দিয়েছে। আজ দেশের মানুষের বাকস্বাধীনতা নেই, আইনের শাসন নেই, গণতন্ত্র নেই, মানবিকতা নেই। গণতন্ত্র ও মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য ৯০’র গণআন্দোলনে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল যেভাবে ভূমিকা রেখেছিল ঠিক সেইভাবে তোমাদেরকেও আন্দোলন সংগ্রামে অবতীর্ণ হতে হবে। আন্দোলন ছাড়া বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির কোন বিকল্প নেই। একমাত্র আন্দোলনই বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব। বেগম খালেদা জিয়া মুক্ত হলে দেশের গণতন্ত্র মুক্তি পাবে। দেশের মানুষের ভোটাধিকার ফিরে আসবে। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হবে।

মহানগর ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চাকসু ভিপি নাজিম উদ্দিন। এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আর ইউ চৌধুরী শাহীন, আবদুল মান্নান, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহসাধারণ সম্পাদক আবু আফসান মো. ইয়াহিয়া, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমদ সাব্বির, নগর বিএনপির সহসম্পাদক আবদুল হালিম স্বপন, কোতোয়ালী থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাকির হোসেন, নগর ছাত্রদলের সহসভাপতি জিয়াউর রহমান জিয়া, চবি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম শহিদ প্রমুখ।

কোন মন্তব্য নেই