চালক রহিম বরখাস্ত

চট্টগ্রামে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া শিক্ষার্থীদের বাসে তোলা হচ্ছে যাত্রী

0
.

চট্টগ্রামে স্কুল শিক্ষার্থীদের দাবীর প্রেক্ষিতে তাদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ১০টি স্কুলবাস চালু হতে না হতেই অনিয়ম অব্যবস্থার অভিযোগ উঠেছে।

গত ২৫ জানুয়ারী থেকে চালু হওয়ার তিনদিনের মাথায় মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারী) শিক্ষার্থীদের জন্য চলা এ বাসে নিয়ম ভঙ্গ করে সাধারণ যাত্রী তুলছে চালক সহকারীরা।

এ ধরণের একটি ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পরপরই তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

স্কুল ডিউটিতে যাওয়ার পথে লোকাল যাত্রী নেওয়ার অভিযোগ পাওয়ার ১০ঘন্টার মাথায় চাকরিচ্যুত হলো বিআরটিসির স্কুল বাসের ওই অভিযুক্ত ড্রাইভার।

.

বিআরটিসি ডিপো ম্যানেজার এম জেড রহমান জানান, স্কুলবাস কার্যক্রম শুরুর পূর্বেই চালকদের প্রতি কঠোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছিলো, স্কুল ডিউটি চলাকালীন এবং ডিউটির পরেও কোন লোকাল যাত্রী পরিবহন করা যাবে না। কিন্তু সে নির্দেশ অমান্য করে স্কুল বাস নং-৭ (ঢাকা মেট্টো- ব ১৫-৮৪৮৬) স্কুল ডিউটিতে যাওয়ার পূর্বে লোকাল যাত্রী নেওয়ার অভিযোগ পাই। অভিযোগ পাওয়ার পরেই আমরা বাসের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখি, অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় অভিযুক্ত ড্রাইভার আব্দুর রহিমকে তাৎক্ষণিক বরখাস্ত করি।

আরো পড়ুন: চট্টগ্রামে চালু হল প্রধানমন্ত্রীর দেয়া শিক্ষার্থীদের ১০টি বাস

এই বিষয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আবু হাসান সিদ্দিক বলেন, স্কুলবাসে শিক্ষার্থী ব্যাতিত যাত্রী পরিবহন না করার ব্যাপারে আমরা কঠোর নির্দেশনা দিয়েছি, এক্ষেত্রে আমরা জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছি। প্রতিটি বাসেই সিসিটিভির আওতায় রয়েছে, এক্ষেত্রে গোপনে যাত্রী পরিবহন করে পার পাওয়ার কোন সুযোগ নেই। আজ অভিযোগ পাওয়ার পরেই জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট দ্রুত বিষয়টি বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ সঙ্গে তদন্ত করে ড্রাইভারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছি।

উল্লেখ্য- শিক্ষার্থীরা যে কোনো দূরত্বে মাত্র পাঁচ টাকা ভাড়ায় চলাচল করতে পারবে। এ বাসে কোনো সুপারভাইজার কিংবা কোনো টিকিট কাউন্টার থাকবে না। শিক্ষার্থীরা স্বেচ্ছায় সততার কাউন্টারে পাঁচ টাকা ভাড়া দিয়ে দিয়ে বাসে যাতায়াত করবে।

কোন মন্তব্য নেই