সীতাকুণ্ডে আবুল খায়ের গ্রুপের কারখানায় যুবকের লাশ উদ্ধার

0
ছবি: প্রতীকি।

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:
সীতাকুণ্ডে আবুল খায়ের গ্রুপের কারখানায় জিলাত আলী (২১) নামের এক ক্লিনারের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  তার গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় ছিল।

আজ বুধবার (৯সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের শীতলপুরস্থ আবুল খায়ের গ্রুপের কারখানার রেষ্ট হাউজের একটি রুম থেকে সীতাকুণ্ড থানা পুলিশ জিলাত আলীর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে বলে জানান মডেল থানার এসআই মামুন।

নিহত জিলাত মৌলভিবাজার জেলার শমসেরগঞ্জ থানার রাপগাঁও গ্রামের শাহাদাত আলীর পুত্র।

আবুল খায়ের গ্রুপের ম্যানেজার মোঃ ইমরুল কায়সার বলেন, ছেলেটা আমাদের ক্লিনার গ্রুপে কাজ করতো। সে ফেসবুকে “আমাকে কেউ আটকাতে পারবেনা” স্টার্টাস লিখে রুমের ভিতর দরজা বন্ধ করে সিলিং ফ্যানের সাথে আত্মহত্যা করে। পুলিশ এসে দরজা ভেঙ্গে তার লাশ উদ্ধার করে। তবে সে কি কারণে আত্মহত্যা করেছে তা বুঝতে পাচ্ছি না।

কোন মন্তব্য নেই