চবির সহকারী প্রক্টরকে অব্যাহতি: অবরোধ স্থগিত

0
ctg-u-news-28-11-16
চবি’র চবির সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেন।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর মৃত্যুর ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যা মামলার প্রধান আসামি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেন চৌধুরীকে তার দায়িত্ব থেকে সাময়িক অব্যাহতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়।

আজ সোমবার সকালে তাকে অব্যাহতির আদেশ দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আলী আজগর্।

সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেন চৌধুরীকে তার দায়িত্ব থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেয়ার ঘোষণার পরপই চবিতে সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের ব্যানারে চলা লাগাতার অবরোধ দ্বিতীয় দিনের মাথায় স্থগিত করা হয়েছে।

এর আগে গত ২৪ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) দিয়াজ ইরফান চৌধুরীকে হত্যা করা হয়েছে এমন অভিযোগে পরিবারের পক্ষ থেকে দিয়াজ ইরফানের বড় বোন অ্যাডভোকেট জুবাঈদা ছরওয়ার চৌধুরী নিপা বাদী হয়ে চট্টগ্রামের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আ স ম শহীদুল্লাহ কায়সারের আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়।

মামলায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবির) সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেন, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আলমগীর টিপুকে প্রধান আসামী করা হয়েছে। মামলা তদন্তের জন্য সিআইডিকে দায়িত্ব দিয়েছেন আদালত।

মামলা দায়েরের পর রবিবার সকাল থেকে ছাত্রলীগের একাংশ দিয়াজ হত্যার প্রতিবাদে এবং ৫ দফা দাবীতে লাগাতার কর্মসূচি ডাকে। এতে শার্টল ট্রেন বন্ধ, শিক্ষক বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়ে চবি ক্যম্পাস অচল করে দেয়া হয়।

রবিবার অবরোধের প্রথম দিনে বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটল ট্রেন বাধা দিতে নগরীর ষোলশহর রেল ষ্টেশন এলাকায় সকালে দিয়াজ অনুসারীরা রেল লাইনের হোস পাইপ কেটে দেয়। এরপর থেকে শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

অবরোধের পক্ষে চবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শোভন অবরোধ প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন দিয়াজ হত্যার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে প্রক্টরিয়াল বডি থেকে সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেনকে অপসারণ করার দাবী ছিল ৫ দফা দাবীর প্রথম দাবী।

চবি প্রশাসক উনাকে সাময়িক অব্যাহতি দিয়ে আমাদের দাবীর প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন। আমাদের প্রথম দাবী পূরণ হওয়ায় আপাতত আন্দোলন স্থগিত করেছি। আশা করবো আমাদের অন্যান্য দাবিগুলোও মেনে নিয়ে এই হত্যার বিচার করা হবে।’

উল্লেখ্য: গত ২০ নভেম্বর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২নং গেট এলাকায় চার তলা ভবনের ভাড়াবাসার নিজ কক্ষে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্তবস্থায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক দিয়াজ ইরফানের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

দিয়াজ চট্টগ্রাম বিশ্ববদ্যালয়ের ২০০৬-০৭ শিক্ষাবর্ষের ফাইন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন।

কোন মন্তব্য নেই