অভিনেত্রী শিমুকে হত্যার ঘটনার দায়স্বীকার করেছেন স্বামী

0
.

চলচ্চিত্র অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমুকে হত্যার ঘটনায় দায় স্বীকার করেছেন তাঁর স্বামী সাখাওয়াত আলীম নোবেল এবং নোবেলের বন্ধু ফরহাদ।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে এ দাবি করেছেন কেরাণীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) চুন্নু মিয়া।

চুন্নু মিয়া বলেন, ‘গত রবিবার নিখোঁজ হন অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমু। গতকাল সোমবার দুপুরে কেরাণীগঞ্জের আলিপুর ব্রিজের নিচ থেকে তাঁর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়। গতকাল রাতেই আমরা সাখাওয়াত আলীম নোবেল ও ফরহাদকে আটক করি। আটকের পর তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সাখাওয়াত আলীম নোবেল ও ফরহাদ এ হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করেছেন। আমরা তাঁদের দেওয়া তথ্য যাচাই-বাছাই করছি।’

চুন্নু মিয়া বলেন, ‘এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে আটক দুজনই জড়িত বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আমরা জেনেছি। শিমুর পরিবারের সদস্যেরা থানায় রয়েছেন। তাঁরা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এ মামলায় সাখাওয়াত আলীম নোবেল ও গাড়িচালক ফরহাদকে আসামি করা হবে। এ ছাড়া অন্য কেউ আসামি হলে তা দ্রুতই জানা যাবে।’

গত রবিবার সকাল থেকে নিখোঁজ ছিলেন রাইমা ইসলাম শিমু। ওইদিন রাতেই কলাবাগান থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন শিমুর স্বামী সাখাওয়াত আলী নোবেল। কলাবাগান থানার এসআই এবং জিডির তদন্ত কর্মকর্তা মো. বিপ্লব হোসেন বলেন, ‘‘জিডিতে নোবেল দাবি করেন, ‘গত রোববার অনুমানিক সকাল ১০টার দিকে কাউকে কিছু না জানিয়ে বাসা থেকে বের হয়ে যান। তারপর থেকে এখন পর্যন্ত (জিডি করার সময় পর্যন্ত) বাসায় ফেরেনি। তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।’’

কোন মন্তব্য নেই