প্রাকৃতিক দূর্যোগের কারণে নগরীতে ওয়াসার পানি সরবরাহ ব্যাহত

1

পাহাড়ে প্রকৃতিক দুর্যোগ ও অতি বর্ষণে হালদা এবং কর্ণফুলীর পানিতে কাদার পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত বৃদ্ধি পাওয়ায় চট্টগ্রাম ওয়াসার স্বাভাবিক পানি উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। চট্টগ্রাম ওয়াসার শেখ হাসিনা পানি শোধনাগার ও মোহরা পানি শোধনাগারে ১০ কোটি লিটার পানি কম শোধন হচ্ছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এতে করে চরম পানি সংকট শুরু হয়েছে চট্টগ্রাম মহানগরীতে।

ওয়াসা সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রাম ওয়াসার কর্ণফুলী পানি শোধনাগার (শেখ হাসিনা পানি শোধনাগার) থেকে প্রতিদিন ১৪ কোটি লিটার পানি শোধন হতো। গত ১১ জুন রাত থেকে ভারী বৃষ্টি হওয়ার পর পাহাড়ি ঢল নামতে থাকে। সেইসঙ্গে পাহাড়ের কাদামাটি হালদা থেকে কর্ণফুলীতে পড়ে। পাহাড়ে একটানা ৫ দিন অতিবর্ষণের ফলে কর্ণফুলী ও হালদা নদীর পানিতে ঘোলার (টারবিডিটি) পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত বৃদ্ধি পেয়েছে।

নগরীর পাহাড়তলী টিঅ্যান্ডটি কলোনির বাসিন্দা মাহমুদা আক্তার মিনু পাঠক ডট নিউজ’কে বলেন, গত এক সপ্তাহ যাবত কলোনিতে পানি আসেনি। বৃষ্টির পানি ব্যবহার করে ধোয়াপালার কাজ করছি। সবচেয়ে বেশি সমস্যা হচ্ছে রান্না ও খাবার পানি নিয়ে। এক ড্রাম পানি কিনতে হচ্ছে ৫০০ টাকা দিয়ে।

চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী একেএম ফজলুল্লাহ পাঠক ডট নিউজ’কে বলেন, চট্টগ্রাম ওয়াসার শেখ হাসিনা পানি শোধানাগার (রাঙ্গুনিয়ার পোমরা থেকে উৎপাদিত) থেকে প্রতিদিন ১৪ কোটি লিটার পানি আমরা শোধন করতাম। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে পাহাড়ে অতি বৃষ্টি হওয়ায় পাহাড় থেকে কাদা বেশি আসছে। এতো বেশি পরিমাণের কাদা পরিশোধন করা সম্ভব নয়। একটা মাত্রা পর্যন্ত পরিশোধন করা যায়। এখন এতো বেশি কাদামাটি আসছে যে তা পরিশোধন করা যাবে না।

খুব শীঘ্রই এই সংকট কাটিয়ে নগরবাসীকে আবারো চাহিদামতো পানি সরবরাহ করা হবে বলে জানান তিনি।

Advertisements

প্রথম মন্তব্য

একটি মন্তব্য দিন