আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা

0
.

আজ পবিত্র জুমাতুল বিদা। মাহে রমজানের শেষ শুক্রবার মুসলিম বিশ্বে ‘জুমাতুল বিদা’ নামে পরিচিত। রমজানের শেষ জুমা হিসেবে মুসলিম উম্মাহর কাছে দিনটির বিশেষ গুরুত্ব ও তাৎপর্য রয়েছে।

আল্লাহর নির্দেশ মোতাবেক কয়েকটি পূণ্যময় দিন ও রাতকে মানুষের জন্য বিশেষভাবে মর্যাদাবান করা হয়েছে। রমজান মাসের সর্বোত্তম রজনী হলো লাইলাতুল কদর আর সর্বোত্তম দিবস হলো জুমাতুল বিদা, যা পরিসমাপ্তিসূচক শেষ শুক্রবার পালিত হয়।

জুমার দিনের তাৎপর্য বর্ণনা করে রাসূলুল্লাহ (দ.) বলেছেন, সপ্তাহের সাত দিনের মধ্যে জুমাবার সর্বাধিক মর্যাদাবান ও নেতৃস’ানীয় দিন। এ পুণ্য দিনে আদি পিতা হজরত আদমকে (আ.) সৃষ্টি করা হয়। এ দিনে তিনি জান্নাতে প্রবেশ করেন। এ দিনে তিনি পুনরায় পৃথিবীতে আগমন করেন। এ দিনে তাঁর ইন্তেকাল হয়। এ শুক্রবারেই কেয়ামত সংঘটিত হবে। এ পুণ্য দিনে এমন একটি সময় রয়েছে, যখন আল্লাহর দরবারে দোয়া কবুল হয়-(মিশকাত)।

বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল মসজিদে প্রগাঢ় মর্যাদা ও ভাবগম্ভীর পরিবেশে আজ জুমাতুল বিদা’র নামাজ আদায় করা হবে। খোতবায় খতিবের আবেগমন্দ্রিত কণ্ঠে উচ্চারিত হবে, ‘আল-বেদা ইয়া শাহরুর রমজান, বিদায়! হে রমজানের মাস বিদায়।

নামাজে মুসলিম উম্মাহ সমেত বিশ্ব মানবতার শান্তি, কল্যাণ ও সমৃদ্ধির জন্যে আল্লাহু রাব্বুল আলামিনের দরবারে মুনাজাত করা হবে। মুসলিম সমাজ ও দেশসমূহের মধ্যে পারস্পরিক হানাহানি ও দ্বন্দ্ব সংঘাত বন্ধের জন্য ফরিয়াদ জানানো হবে। ফিলিস্তিন সমেত নিপীড়িত ও জুলুমের শিকার অন্যান্য মুসলিম রাষ্ট্রের নির্যাতিত জনগণের মুক্তি ও শান্তি কামনায় আল্লাহর সাহায্য কামনা করা হবে। পৃথিবী থেকে সাম্রাজ্যবাদী, উপনিবেশবাদী, বর্ণবাদী সকল প্রকার শোষণ ও পীড়ন, অত্যাচার, জুলুম, কুশাসন, অপশাসন নির্মূল করার জন্য মুনাজাত করা হবে। সংযম, আত্মশুদ্ধি, শান্তি ও সাম্যের চেতনায় উজ্জীবিত মাহে রমজানকে আমরা গভীর আবেগ ভরে জানাই বিদায়-আলবেদা, ইয়া শাহরু রমজান।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন