বোয়ালখালীতে সংখ্যালঘু পরিবারের জমি দখলের পাঁয়তার

0
20160616_170812-3
বোয়ালখালীতে সংখ্যালঘু পরিবারের জমি সাইনবোর্ড লাগিয়ে দখলের পাঁয়তার করছে একটি চক্র।

বোয়ালখালি (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

বোয়ালখালীতে এক সংখ্যালঘু পরিবারের জমি সাইনবোর্ড লাগিয়ে দখলের পাঁয়তার করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার মধ্যম শাকপুরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, শাকপুরা গ্রামের বাসিন্দা পাঁচকড়ি চৌধুরীর মৌরশী ১২শতকের জমিতে মোবাইল নাম্বার সম্বলিত সাইনবোর্ড লাগিয়ে দেয় কাজী খোরশেদ আলম মুন্না (জনি) নামের এক ব্যক্তি।

বিচারাধীন অবস্থায় বিরোধীদের সম্পত্তিতে সাইনবোর্ড লাগানোয় বিস্ময় প্রকাশ করে এলাকাবাসী বলেন, সাইনবোর্ড লাগিয়ে জমি দখল নাকি অর্থ হাতানোর পাঁয়তারা করছে ভূমিদস্যু চক্র!

পাঁচকড়ি চৌধুরীর ছেলে জহরলাল চৌধুরী জানান, ১২ শতকের জমিতে একটি সংঘবদ্ধ ভূমিদস্যু দল মোবাইল নম্বর সম্বলিত সাইনবোর্ড লাগিয়ে দেয়। এ চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে শাকপুরা এলাকার সংখ্যালঘুদের জমির বিভিন্ন জটিলতা ও ত্রুটি বের করে সে জায়গা বিভিন্ন নামের মোবাইল নম্বর সম্বলিত সাইন বোর্ড লাগিয়ে দেয়।

তিনি জানান, মোবাইল নম্বর দেয় যাতে জমির মালিক তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারে। এরপর ওই চক্র বিভিন্ন সালিশী বৈঠক ও আপোষ মীমাংসার নামে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়।

এ জায়গাসহ মৌরশী সম্পত্তি নিয়ে এসএম সাইফুল ইসলাম ও নির্মল নন্দ চৌধুরীকে বিবাদী করে গত ৪ মে সহকারী জজ আদালতে ঘোষণা মূলক ডিগ্রি ও ১০ মে অর্ন্তবর্তীকালীন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ পাওয়ার আবেদন করেছেন বলে জানিয়েছেন পাঁচকড়ি চৌধুরী।

এ ব্যাপারে আদালতে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট গত ৯ জুন স্বাক্ষরিত এ আদেশে উভয় পক্ষকে স্থিতাবস্থা বজায় রাখার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বোয়ালখালী থানা অফিসার ইনচার্জকে নিদের্শনা প্রদান করেন।
জনৈক নির্মল নন্দর কাছ থেকে এ জায়গা আমমোক্তারনামা মূলে ক্রয় করেছেন দাবি করে এসএম সাইফুলের চাচাতো ভাই কাজী খোরশেদ আলম মুন্না। তিনি জানান, আমমোক্তার মূলে জমিতে সাইনবোর্ড লাগানো হয়েছে।

Advertisements

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন