১৪ মাস আগে অপহৃত সীতাকুণ্ড যুবদল নেতার কঙ্কাল উদ্ধার

0
.

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে থেকে অপহৃত মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন প্রকাশ ছুটন (৪০) এক যুবদল নেতা লাশ পুলিশ ১৪ মাস পর উদ্ধার করেছে।

অপহরণের পর হত্যা করে লাশ গোপন করা ছুটন উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চট্টগ্রাম সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক মোহাম্মদ শরীফ জানান, গত ১৯ মে বাহ্মনবাড়ীয়া জেলার নবীনগর থানার ছালনা এলাকা থেকে রানা ও সোহেল নামে দুই আসামীকে গ্রেফতার করার পর বুধবার সন্ধ্যায় তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে সলিমপুর পাহাড়ের কালিছড়া কেরাড়ী পাহাড় থেকে কঙ্কালটি উদ্ধার করা হয়। ছুটনের ভাই এবং ছুটনের স্ত্রী লাশটি শাহাদাত হোসেন ওরফে ছুটনের লাশ বলে সনাক্ত করে।

এর আগে গত বছরের ১১ই জুলাই অপহরণ হন। পরে তার স্ত্রী বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

জানা যায়, অপহৃত ছুটন চট্টগ্রাম জেলার সন্দ্বীপ উপজেলার হরিশপুর গ্রামের মৃত মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে। দীর্ঘ দিন ধরে তিনি সীতাকুণ্ডের সলিমপুর ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ফকিরহাট বরইতলা এলাকায় বসবাস করতেন।

ছুটনের স্ত্রী সাদিয়া আক্তার জানান, আমার ছোট সন্তান মো. জিহাদের জন্মের এক মাস পর গত বছর (১১ই জুলাই) রাতে আমার স্বামীকে জঙ্গল ছলিমপুরের ত্রাস কাজী মশিউর সহ তার লোকজন বাসা থেকে ডেকে মারতে মারতে নিয়ে যায়। এরপর তার আর খোঁজ মেলেনি।

সীতাকুণ্ড থানা ও ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করলেও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করেনি। পরে মামলাটি তদন্তের ভার সিআইডি পুলিশের হাতে ন্যস্ত করতে আদালতের কাছে আর্জি জানালে মামলাটির (সীতাকুণ্ড মামলা নং-২৫) তদন্তের দায়িত্ব দেয় চট্টগ্রাম সিআইডি পুলিশকে। সিআইডি কর্তৃক গ্রেফতারকৃত দুজনই জঙ্গল ছলিমপুরের ত্রাস, হত্যা মামলার আসামি কাজী মশিউর রহমানের লোক। তিনি স্বামী হত্যার বিচার চান।

Advertisements

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন