ত্বকে লালচে র‌্যাশ ওঠার কারণ

0

তীব্র গরমে ত্বকে ঘাম জমে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ দেখা দেয়। ফলে লালচে র‍্যাশ সৃষ্টি হয় ত্বকে। এতে চুলকানি হয় প্রচণ্ড। গরমে র‍্যাশ জাতীয় অ্যালার্জি থেকে দূরে থাকতে মেনে চলা চাই কিছু নিয়মকানুন। তবে র‍্যাশ বেড়ে গেলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

জেনে নিন ত্বকে লালচে র‌্যাশ হলে করণীয় সম্পর্কে-

সংক্রমণ: বেশ কিছু রোগ আছে যার সংক্রমণ ঘটলে দেহে র‌্যাশ উঠতে পারে। জীবাণুর সংক্রমণে এমন র‌্যাশ ওঠার সবচেয়ে সাধারণ উদাহরণটি হলো চিকেন পক্স। এ ছাড়া ত্বকে ব্যাকটেরিয়া বা ছত্রাক সংক্রমণের ফলেও র‌্যাশ ওঠে।

খাবারে অ্যালার্জি: ত্বকে র‌্যাশ ওঠার সবচেয়ে সাধারণ কারণটি হলো খাদ্যের অ্যালার্জি। খাদ্যের অ্যালার্জি গ্যাসট্রোইনটেস্টিনাল সমস্যাসহ র‌্যাশ উঠতে পারে। এতে ত্বক লালচে হয়ে চুলকাতে পারে। সাধারণ হলে চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার আগে ৬ সপ্তাহ ওই খাবার না খেয়ে দেখতে পারেন র‌্যাশ ভালো হয় কিনা।

ওষুধ সংশ্লিষ্ট অ্যালার্জি: অন্যান্য ওষুধ খাওয়ার ফলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে ত্বকে র‌্যাশ উঠতে পারে। এ ধরনের র‌্যাশকে বলে ড্রাগ ইরাপশনস। অন্য কোনো চিকিৎসা নেওয়া অবস্থায় এমন র‌্যাশ উঠলে জরুরি ভিত্তিতে চিকিৎসকের কাছে যান।

তাপ: যেকোনো দেশে গরমকালে দেহে র‌্যাশ ওঠা সাধারণ একটি ব্যাপার। এই র‌্যাশ ওঠে ঘাম ত্বকের লোমকূপের ছিদ্র দিয়ে বের হতে না পারলে। এ ছাড়া মোটা দেহে ত্বকের ভাঁজের মধ্যেও র‌্যাশ ওঠে। অতিরিক্ত তাপজনিত কারণে ওঠা এসব র‌্যাশ থেকে বাঁচার উপায় হলো ওই অংশটি শুকনো ও শীতল রাখা।

জেনে নিন ত্বকের র‍্যাশ ও চুলকানি থেকে রক্ষা পেতে কী করবেন- 

# গরমে অতিরিক্ত আঁটসাঁট পোশাক অস্বস্তি বাড়ায়। দীর্ঘক্ষণ এ ধরনের পোশাক পরে থাকার কারণে ত্বকে র‍্যাশও সৃষ্টি হতে পারে। প্রচণ্ড গরমের এ সময় তাই ঢিলেঢালা পোশাকই আরামদায়ক। কাপড় হিসেবে বেছে নিন সুতি।
# পেট্রোলিয়াম জেলিজাতীয় কোনও প্রসাধনী যেন ত্বকের সংস্পর্শে না আসে সেদিকে লক্ষ রাখুন।
# গরমে র‍্যাশ থেকে বাঁচতে প্রতিদিন অন্তত দুইবার গোসল করা জরুরি।
# ত্বক সবসময় পরিষ্কার রাখুন। ঘেমে গেলে সঙ্গে সঙ্গে ঘাম মুছে ফেলবেন। সম্ভব হলে সঙ্গে ভেজা টিস্যু রেখে দিন। এতে চট করে মুছে ফেলতে পারবেন ঘাম।
# প্রয়োজন ছাড়া রোদে একেবারেই থাকবেন না।
# গরমে ট্যালকম পাউডারের বদলে ঘামাচি পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। এটি র‍্যাশজনিত চুলকানি থেকে মুক্তি দেবে।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন