চবি’র ৫ ছাত্রলীগকর্মীর বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ

0
.

চবি প্রতিনিধিঃ
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) পাঁচ ছাত্রলীগকর্মীর বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়ন ও হুমকির অভিযোগ এনে লিখিত অভিযোগপত্র দিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের মাস্টার্সের তিন শিক্ষার্থী।

আজ বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) বিকাল ৩ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিসে অভিযোগকারীরা এ অভিযোগপত্র দায়ের করেন।

অভিযুক্তরা হলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্ব বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ইমরান হোসাইন, একই বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম আরিফ ও নাদিরুজ্জামান, আন্তর্জাতিক সর্ম্পক বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী ইজাজ হায়দার ইজু এবং ইসালামের ইতিহাস বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী শোয়াবুর রহমান কনক।

এরা সবাই বিশ্ববিদ্যালয়ের বগি ভিত্তিক সংগঠন সিএফসি ও শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি রেজাউল হক রুবেল এবং আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। এর আগেও তাদের বিরুদ্ধে সাংবাদিক মারধর, হুমকি , ইভটিজিং ও মাদক কারবারের একাধিক অভিযোগ রয়েছে বলে জানা যায়।

অভিযোগপত্রে বলা হয়, গত বুধবার (৩ অক্টোবর) যৌন হয়রানির শিকার যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের দুই ছাত্রী সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ক্যান্টিনে দুপুরের খাবার খেতে গেলে ক্যান্টিনে অবস্থানরত অভিযুক্ত পাচঁ ছাত্রলীগকর্মী তাদের অশালীন ভাষায় গালিগালাজ ও বিভিন্নভাবে টিজ করা শুরু করে। এসময় দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকার চবি প্রতিনিধি ও একই বিভাগের শিক্ষার্থী জাহিদ হাসান সবুজ বাধা দিতে গেলে তাকে মারধর করে। খবর পেয়ে বিভাগের অন্যা শিক্ষার্থীরা ও সিএফসি গ্রুপের নেতারা বিষয়টি সমাধানের জন্য বসলে ওই পাচঁ ছাত্রলীগকর্মী সহ বেশকয়েকজন মিলে আবারও অশালীন ভাষায় গালি-গালাজ করতে থাকে।

এ বিষয়ে চবি প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী বলেন, আমরা যৌন হয়রানি ও নিপীড়নের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আমরা বিষয়টিকে গুরুত্বসহকারে দেখব। এই অভিযোগটি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন সেলে পাঠানো হবে। এবং আইন অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।যৌন নিপীড়ন সেলের প্রধান হলো বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন