১৬ আসনে বিএনপির শতাধিক মনোনয়নপত্র: কারাগারে থেকে ৬জন
চট্টগ্রামের ৫ আসনে বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী : ৬ নারী প্রার্থীর মনোনয়ন সংগ্রহ

0
.

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৃহত্তম শরিক দল বিএনপির হয়ে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত চট্টগ্রামের ১৬ আসনের বিপরীতে ১০৩ মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছে নেতাকর্মীরা। এদের মধ্যে চট্টগ্রাম কারাগারে বন্দী থেকে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছে ৬ প্রার্থী। পুরুষদের পাশাপাশি বিএনপির দলীয় মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছে চট্টগ্রামের ৬ নারী প্রার্থী।

এছাড়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে চট্টগ্রামের ৫ আসনে ভোটের লড়াইয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করবে বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী। গত ১২ নভেম্বর থেকে ১৪ নভেম্বরের মধ্যে এসব প্রার্থীদের হয়ে তাদের কর্মী সমর্থক ও স্বজনরা মনোনয়ন পত্রগুলো সংগ্রহ করেন। শুক্রবার পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা যাবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

.

দলীয় সূত্রে জানা যায়, ঢাকার নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে এসব ফরম সংগ্রহ করা হয়। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির দলীয় প্রার্থী হতে চট্টগ্রামের ১৬ আসনের মধ্যে এবার সর্ব্বোচ্চ সংখ্যক মনোনয়ন ফরম নিয়েছে চট্টগ্রামের ১ (মীরসরাই) আসন থেকে। এ আসন থেকে এবার ১৩ জন প্রার্থী বিএনপির হয়ে মনোনয়ন নিয়েছেন।

নগরীর ১১ চট্টগ্রাম বন্দর-পতেঙ্গা, ডবলমুরিং, ইপিজেড ও সদরঘাট সংসদীয় আসনে গতকাল পর্যন্ত ৪টি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

এ আসন থেকে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ছাড়া আরও মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন আরো ৩ জন। তারা হলেন- সবেক নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মরহুম দস্তগীর চৌধুরীর ছেলে ফয়সাল দস্তগীর, সাবেক সেচ্ছাসেবক দল নেতা এসকে খোদা তোতন, চট্টগ্রাম বিশ্বাবিদ্যালয় ছাত্রদলের সাবেক নেতা সোয়েবুর রহমান খসরু।

দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত সোমবার হতে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত বিএনপির দলীয় প্রার্থী হতে চট্টগ্রামের ১৬ আসনের বিপরীতে ১০৩টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে। এদের মধ্যে চট্টগ্রাম-১ (মীরসরাই সংসদীয় আসনে ১৩টি, চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) সংসদীয় আসনে ১১ টি, চট্টগ্রাম-৩ (সনদ্বীপ) সংসদীয় আসনে ৭টি, চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুন্ড, পাহাড়তলী-আকবর শাহ আংশিক) সংসদীয় আসনে ৯টি, চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী উপজেলা ও সিটি কর্পোরেশনের ১, ২ নং ওয়ার্ড) সংসদীয় আসনে ৫টি, চট্টগ্রাম-৬ (রাউজান) সংসদীয় আসনে ৫টি, চট্টগ্রাম-৭ (রাঙ্গুনীয়া ও বোয়ালখালীর শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউপি) সংসদীয় আসনে ১০টি, চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী, চান্দগাঁও, বায়েজিদ ও পাঁচলাইশ আংশিক) সংসদীয় আসনে ৩টি, চট্টগ্রাম-৯ (বাকলিয়া-কোতোয়ালীর সিটি কর্পোরেশনের ১৫ থেকে ২৩ ও ৩১ থেকে ৩৫ নং ওয়ার্ড) সংসদীয় আসনে ৫টি, চট্টগ্রাম-১০ (ডবলমুরিং-পাহাড়তলী-হালিশহর-খুলশী) সংসদীয় আসনে ৪টি, চট্টগ্রাম-১১ (বন্দর, পতেঙ্গা, ডবলমুরিং, ইপিজেড ও সদরঘাট) সংসদীয় আসনে ৪টি, চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া) সংসদীয় আসনে ৬টি, চট্টগ্রাম-১৩ (আনোয়ারা ও কর্ণফুলী) সংসদীয় আসনে ৫টি, চট্টগ্রাম-১৪ (চন্দনাইশ-সাতকানিয়া আংশিক) সংসদীয় আসনে ৫টি, চট্টগ্রাম-১৫ (লোহাগাড়া-সাতকানিয়া আংশিক) সংসদীয় আসনে ৬টি এবং চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) সংসদীয় আসনে ৪টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

কারাগারে থেকে বিএনপির দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন নিয়েছে যারা: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম কারাগারে থেকে বিএনপি প্রাথী হিসেবে মনোনয়ন নিলেন ৬ জন প্রার্থী। এদের মধ্যে চট্টগ্রাম-৩ (সনদ্বীপ) সংসদীয় আসনে প্রার্থী হতে বিএনপি নেতা প্রকৌশলী বেলায়েত হোসেন কারাগারে থেকেও দলীয় কর্মী সমর্থকদের দিয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। চট্টগ্রাম-৪(সীতাকুন্ড, পাহাড়তলী-আকবর শাহ আংশিক) সংসদীয় আসনে নির্বাচনে লড়াইয়ে অংশ গ্রহণ করতে কারাগার থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৃহত্তম শরিক দল বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব আসলাম চৌধুরী। চট্টগ্রাম-৭ (রাঙ্গুনীয়া ও বোয়ালখালীর শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউপি) সংসদীয় আসনে বিএনপির দলীয় প্রার্থী হতে কারাগারে থেকে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন বিএনপি নেতা অধ্যাপক কুতুব উদ্দিন, চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাৎ হোসেন ও নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্কর কারাগারে থেকে দলীয় কর্মী সমর্থকদের দিয়ে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন চট্টগ্রাম-৯ (বাকলিয়া-কোতোয়ালীর সিটি কর্পোরেশনের ১৫ থেকে ২৩ ও ৩১ থেকে ৩৫ নং ওয়ার্ড) সংসদীয় আসনে প্রার্থী হয়ে ভোটের মাঠে প্রতিদ্বন্ধিতা করতে। এছাড়া বাঁশখালীর গণ্ডামারা ইউনিয়নের আলোচিত সেই চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা লেয়াকত আলী বিএনপির টিকেটে বাঁশখালী সংসদীয় আসনে প্রাথী হতে বিএনপি থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বলে জানা গেছে।

চট্টগ্রামের ১৬ আসনের বিপরীতে যে ৭ নারী বিএনপির হয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন: চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) সংসদীয় আসনে সাবেক এমপি ও মহিলা কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি বেগম নুরী আরা ছাফা এবং চসিকের কাউন্সিলর জেসমিনা খানম বিএনপির হয়ে লড়াই করতে মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী উপজেলা ও সিটি কর্পোরেশনের ১, ২ নং ওয়ার্ড) সংসদীয় আসনের লড়াই করতে বিএনপি থেকে মনোনয়ন ফরম কিনেছেন সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত বিএনপি বর্ষিয়ান নেতা সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের মেয়ে ব্যরিস্টার শাকিলা ফারজানা। এডভোকেট ফরিদা আকতার বিএনপি থেকে চট্টগ্রাম-৬ (রাউজান) সংসদীয় আসনের জন্য মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন। চট্টগ্রাম-৯ (বাকলিয়া-কোতোয়ালীর সিটি কর্পোরেশনের ১৫ থেকে ২৩ ও ৩১ থেকে ৩৫ নং ওয়ার্ড) সংসদীয় আসনের প্রার্থী হতে বিএনপি থেকে মনোনয়ন নিয়েছেন মহানগর মহিলা দলের সিনিয়র সহ সভাপতি বেগম ফাতেমা বাদশা। এছাড়া চট্টগ্রাম-১৫ (লোহাগাড়া-সাতকানিয়া আংশিক) সংসদীয় আসনে দক্ষিণ জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক জান্নাতুল নাঈম চৌধুরী রিকু।

চট্টগ্রামে ৫টি আসনে লড়বে বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী : আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রামের ৫ আসনে বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। এদের মধ্যে চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী উপজেলা ও সিটি কর্পোরেশনের ১, ২ নং ওয়ার্ড) সংসদীয় আসনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী, চান্দগাঁও, বায়েজিদ ও পাঁচলাইশ আংশিক) সংসদীয় আসনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোরশেদ খান, চট্টগ্রাম-১০ (ডবলমুরিং-পাহাড়তলী-হালিশহর-খুলশী) সংসদীয় আসনে দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, চট্টগ্রাম-১১ (বন্দর, পতেঙ্গা, ডবলমুরিং, ইপিজেড ও সদরঘাট) সংসদীয় আসনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী এবং চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) সংসদীয় আসনে দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ জাফরুল ইসলাম চৌধুরী এবারের সংসদ নির্বাচনে বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী হিসেবে দলীয় টিকেট পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলে একাধিক নেতাকর্মীর সাথে কথা বলে জানা গেছে।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন