প্রফেসর ড. আ ন ম মুনীর আহমদ আর নেই

2
14054191_1115567855202179_4429396520140219523_n
প্রফেসর ড. আ ন ম মুনীর আহমদ।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক ও বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের সভাপতি প্রফেসর ড. আ ন ম মুনীর আহমদ ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি… রাজেউন) দীর্ঘাদিন নানা জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬২ বছর।

চট্টগ্রামমেট্টোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও পেশাজীবি নেতা মো. শাহনওয়াজ তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিকালে তার লাশ ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে নিয়ে আসা হবে।

আজ সোমবার সকাল ১১টায় ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন| আগামীকাল ২৩ আগস্ট মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় চট্টগ্রাম মহানগরীর জমিয়াতুল ফালাহ জামে মসজিদে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে বলে পারিবারিক সুত্রে জানাগেছে।

ড. মুনির আহমদ চৌধুরী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ও শিক্ষক সমিতির সভাপতির দায়িত্বপালন করেন। শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের অতি প্রিয় এ শিক্ষক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক,সহকারি অধ্যাপক ও প্রভাষক ক্যাটাগরিতে সিন্ডিকেট সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। যা বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাসে বিরল। ড. মুনির কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসাবে যোগদান করার আগে আনোয়ার উপজেলার শাহ মোহসেন আওলিয়া ডিগ্রি কলেজের প্রতিষ্ঠিতা ও প্রিন্সিপাল ছিলেন।

পরবর্তীতে তিনি ওই কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতিও ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য চট্টগ্রামে স্বনামধন্য সাউথ পয়েন্ট স্কুল এন্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা এ শিক্ষক সমসাময়িক রাজনীতি বিষয়ে অসংখ্য গবেষণা প্রবন্ধ-নিবন্ধ বিভিন্ন জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। যা বাংলাদেশ ও বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ছাত্র-ছাত্রীদের পাঠ্য। তার অধীনে অসংখ্য ছাত্র এফফিল ও পিএইচডি কোর্সে গবেষণা করে ডিগ্রী লাভ করেছেন।

তিনি দেশের একজন খ্যাতিমান রাজনীতি বিজ্ঞানীর পাশাপাশি তিনি ইসলামী চিন্তাবিদ ও সুবক্তা হিসাবে পরিচিত ছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬০ বছর। ড. আ.ন.ম মুনির আহমেদ এর স্ত্রী নার্গিস আক্তার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষিকা। পারিবারিক জীবনে তিনি দুই কন্যা ও এক পুত্র সন্তানের জনক। তার সুযোগ্য বড় কন্যা ডাক্তার নোওমা আফরিন মনির ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরত। ছোট কন্যা মালিহা তাবাচ্ছুম মনির যুক্তরাষ্ট্রে পিএইচডি কোর্সে গবেষণা করছেন।

একমাত্র পুত্র এ.এল. এম. মিসবাউল মনির যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব ওয়েস্ট ইংল্যন্ড এর আইন বিষয়ে শিক্ষার্থী।

মরহুমের প্রথম জানাযা সোমবার বাদ জোহর ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়। দ্বিতীয় জানাযা মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ মাঠে সকাল ১০টায় এবং তৃতীয় জানাযা মঙ্গলবার বাদ জোহর আনোয়ারা উপজেলার নিজ গ্রামের মধ্যম বারখাইন আমির বিবি জামে (বাদামতল) মসজিদের মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

 

2 মন্তব্য