ভূমি মন্ত্রণালয়ের সকল কর্মকর্তা কর্মচারীদের সম্পত্তির হিসেবে দিতে হবে- ভুমিমন্ত্রী জাবেদ

1
ব্রেকিং নিউজ
  • *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

.

সারাদেশে ভূমি মন্ত্রণালয়ের অধিনে থাকা সকল কর্মকর্তা কর্মচারীদের আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির হিসাব দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ।

আজ শনিবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী এ নির্দেশের কথা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ভুমি মন্ত্রণালয়কে দুর্নিতীমুক্ত এবং জবাবদিহিতার আওতায় এনে জনগণের সেবা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

.

মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী ভুমি অফিসগুলোতে জনগণকে হয়রানি মুক্ত সেবা প্রদান, ঘুষ, দুর্নিতীমুক্ত করতে পুন:রায় সারপ্রাইজ ভিজিট শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ভূমিমন্ত্রী বলেন, ভূমি অধিগ্রহণের নোটিশ ইস্যুর পর মামলা হয়। ভূমি অফিসের নিচু শ্রেণির কর্মীরা এর সঙ্গে জড়িত থাকে। তাই নোটিশ ইস্যুর পর মামলা টিকবে না এমন একটি সিস্টেম বের করছি। সোজা হিসাব। এ রকম নিয়ম করা হবে। অন্যায়ের আশ্রয় নিলে আমি কাউকে ছাড় দেব না। কারো ব্যর্থতার দায়ভার আমি নেব না।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের উন্নয়নের দায়িত্ব নিয়েছেন। এ উপমহাদেশের প্রথম টানেল হচ্ছে চট্টগ্রামে। বড় প্রকল্পগুলোতো আছেই। আমি শুধু প্রস্তাব করবো’ যোগ করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, বে টার্মিনাল, কর্ণফুলী টানেল, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেললাইন, অর্থনৈতিক অঞ্চলসহ সব বড় প্রকল্পের ভূমি ছাড়ে প্রায়োরিটি দেওয়া হচ্ছে। কর্ণফুলীর দুই পাড়ের সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ হবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

ভুমি অফিসগুলোতে জনগণের দুর্ভোগের চিত্র এবং নাম জারীতে হয়রানী ও সরকারী ফ্রির অতিরিক্ত অর্থ আদায় সহ বিভিন্ন অনিয়ম হয়রানী ও দুনির্তীর চিত্র তুলে ধরে এর সমাধানে মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা এবং ভুমি অধিগ্রহণের ক্ষেত্রে ক্ষতিপূরণ পাওয়ার ক্ষেত্রে স্পটে গিয়ে ক্ষতিপূরণের অর্থ আদায়ের অনুরোধ জানান।