দুই হাজার টাকা দিয়ে পরিচয়পত্র কিনেই পান দোকানদার থেকে সাংবাদিক!

0
ব্রেকিং নিউজ
  • *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

.

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

ছিলেন পান দোকানদার দুই হাজার টাকা দিয়ে আইডি কার্ড কিনে হয়ে গেলেন সাংবাদিক। সীতাকুণ্ডে এমন এক কথিত সাংবাদিকের (!) সন্ধ্যান মিলেছে যে কিনা মোটর সাইকেলে প্রেস লিখে গাড়ি চালানোর সময় মহাসড়কে অন্য কোন গাড়িকে পাশ কাটিয়ে যেতে দেন না।

এমন কি থানার ওসির গাড়ীকেও সাইট দিতে চান না বিশাল এই সাংবাদিক! অবশেষে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে এই ভুয়া সাংবাদিক।

আটক এই যুবকের নাম রবিউল হোসেন। সে উত্তর ভাটিয়ারী এলাকার কামাল মেম্বারের বাড়ির মোঃ আবুল বসরের পুত্র।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার বিকাল পাঁচটার দিকে মোটর সাইকেলে প্রেস লিখে মহাসড়ক দিয়ে সীতাকুণ্ডের অভিমুখে যাওয়ার সময় পিছনে সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি মোঃ দেলোয়ার হোসেনের গাড়িকে ঐ যুবক সাইট না দিয়ে চলতে থাকে। এসময় ওসির গাড়ি সাইটের জন্য বার বার হরণ দিলেও সে যুবক সাইট দিতে না চাইলে তাকে আটক করে পরিচয় জানতে চাইলে সে নিজেকে সৃষ্টি টিভির সাংবাদিক পরিচয় দেয়।

এসময় তার কথা বার্তায় ওসির সন্দেহ হলে বিষয়টি সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের অবহিত করেন।  পরে প্রেসক্লাবের কর্মকর্তারা আটক মোঃ রবিউল হোসেন এর সাথে আলাপকালে সে স্বীকার করে পেশায় সে পান দোকানদার।

নগরীর আন্দরকিল্লা এলাকার সুমন চক্রবর্তী নামে একজন দুই হাজার টাকার বিনিময়ে সৃষ্টি টিভি নামের একটি আইডি কার্ড দেন, এরপর থেকে আমি মোটর সাইকেলে প্রেস লিখে চলাফেরা করি এবং সব জায়গায় সাংবাদিক পরিচয় দিই। সাংবাদিকতা সম্পর্কে ন্যুন্যতম জ্ঞানও আমার নাই। সম্মানের জন্য আমি সাংবাদিকতার কার্ডটি সুমন চক্রবর্তীর কাছ থেকে ২০০০ টাকায় কিনে নিয়েছিলাম। এধরনের আরো অনেকেই দুই হাজার টাকার বিনিময় কার্ড কিনে নেয়। সে নিজেকে ভূয়া সাংবাদিক হিসাবে এক বছর ধরে পরিচয় দিয়ে মারাত্নক ভূল করে বলে স্বীকার করে সকল সাংবাদিকদের কাছে বার বার ক্ষমা চায়।

সে জীবনে আর কখনও সাংবাদিক পরিচয় দেবে না বলে থানায় মুছলেখা দিয়ে ছাড়া পায়।

কোন মন্তব্য নেই