যে আচরণগুলো দেখলে বুঝবেন আপনার পোষ্য অবসাদে ভুগছে

0
.

কুকুরদেরও অনুভূতি মানুষের মতোই প্রখর৷ কখনও কখনও ওদের অনুভূতি মানুষের থেকেও গভীর হয়৷ পরিবারের কোনও সদস্যের মৃত্যু, অন্য পোষ্যের সঙ্গে বিচ্ছেদ বা বাড়িতে কোনও পরিবর্তনের কারণে আপনার পোষ্যের আবসাদ হতে পারে৷ ওদের দিকে খেয়াল রাখুন৷ এই আচরণগুলো দেখলে অবশ্যই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ওদের কোনও সংবেদনশীল পশু চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান৷

আপনার পোষ্য কি একেবারেই খাওয়া দাওয়া ছেড়ে দিয়েছে? বা একটু বেশিই খাচ্ছে? খিদে বা অ্যাপেটাইটে কোনও পরিবর্তন অবসাদের প্রাথমিক লক্ষণ৷ এই আচরণগুলো দেখলে অন্য লক্ষণগুলোর দিকে খেয়াল রাখুন৷

আপনার পোষ্য কি অতিরিক্ত ঘুমোচ্ছে? যদিও এই লক্ষণ বোঝা বেশ কঠিন কারণ কুকুররা স্বাভাবিক অবস্থাতেই দিনে ১৪-১৬ ঘণ্টা ঘুমোয়৷ যদি দেখেন পোষ্য সারাদিনই ঘুমোচ্ছে বা কিছুতেই ঘুম থেকে উঠতে, নড়তে চাইছে না, তাহলে বিশেষজ্ঞের কাছে নিয়ে যান ওকে৷

আপনার পোষ্য কি ওর প্রিয় খাবারের প্রতি আকর্ষণ হারিয়েছে বা প্রিয় কাজ, খেলার প্রতি উৎসাহ পাচ্ছে না? এই আচরণ কিন্তু অবসাদে ভোগার খুব বড় লক্ষণ৷

পোষ্য কি আপনার থেকে দূরে দূরে থাকছে হঠাৎ? একা, লুকনো কোনও জায়গায় থাকতে চাইছে? কোনও রকম ব্যথা, দুঃখ, ট্রমা থেকে এমনটা হয়ে থাকতে পারে৷

আপনার পোষ্য কি নিজের হাত, পা চাটছে? এই আচরণগুলো খেয়াল করা খুব সহজ৷ সাধারণত কোনও শারীরিক বা মানসিক অস্বস্তি হলে ওরা নিজেদের আরাম দিতে এমনটা করে থাকে৷ এই লক্ষণ অবশ্যই অবসাদের৷

বিশেষজ্ঞের কাছে অবশ্যই নিয়ে যাবেন৷ তবে ওদের ভাল রাখতে আপনার যত্নই সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন৷ তাই ওরা অবসাদে ভুগলে সময় মতো খেতে দিন৷ ওদের পছন্দের খাবার দিন৷ বাইরে হাঁটতে নিয়ে যান, ওরা যা কাজ ভালবাসে সেই কাজ ওদের সঙ্গে করুন৷

কোন মন্তব্য নেই