রঙিন চুলের যত্ন

0
.

ফ্যাশন সচেতন তরুণ-তরুণীরা এখন চুল রঙিন করছেন। তবে যত্নের অভাবে রঙিন চুল রুক্ষ হয়ে যায়। উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে রঙিন চুলে নিতে হয় বাড়তি যত্ন। কেননা চুলের রঙে থাকা ক্ষতিকারক উপাদান আপনার চুলকে রুক্ষ, পাতলা ও ভঙ্গুর করে ফেলতে পারে। কিছু প্রয়োজনীয় টিপস অনুসরণ করলেই চুলকে ক্ষতির হাত থেকে বাঁচানো সম্ভব।

নারিকেল তেলের ব্যবহার
চুলের যত্নে নারিকেল তেলের ব্যবহার অনেক প্রাচীন। নারিকেল তেলে থাকা উপাদানগুলি শুধু চুলের রঙ বেশিদিন ধরে রাখবে তা নয়, এটি চুলের শুষ্কতা কমিয়ে চুল ভাঙা রোধ করে। দুই টেবিল চামচ গরম তেল মাথার স্কাল্পে ভালোমত ম্যাসাজ করুন। এক ঘণ্টা রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

মেয়োনিজের ব্যবহার
মেয়োনিজ হলো প্রোটিনের পাওয়ার হাউজ যা চুলের রঙ ধরে রাখতে আশ্চর্‍য রকমভাবে কাজ করে। এটি চুলে পুষ্টি জোগায়, চুল নরম রাখে। সপ্তাহে একদিন মেয়োনিজ চুলে লাগিয়ে ৩০ মিনিট রেখে দিন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনার চুলের রঙ ধরে রাখবে।

সালফেটমুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করুন
যেসব শ্যাম্পুতে সালফেট থাকে সেগুলো চুলের রঙ খুব দ্রুত নষ্ট করে দেয়। সেইসঙ্গে চুলকে নির্জীব ও রুক্ষ করে দিতে পারে। তাই রঙিন চুলের মালিকেরা এমন শ্যাম্পু এড়িয়ে চলুন।

সাদা ভিনেগার
চুলের রঙ আপনার মাথার স্কাল্প বিষাক্ত করে দিতে পারে। এর ফলে চুলে নানামুখী সমস্যা দেখা দেয়। এসব সমস্যার সমাধান দিতে পারে ভিনেগার। একটি মগে দুই টেবিল চামচ ভিনেগার কুসুম গরম পানির সঙ্গে মিশিয়ে চুলে লাগান। আর দেখুন ফলাফল।

ময়েশ্চার সমৃদ্ধ কন্ডিশনার
রঙিন চুলের জন্য ডিপ কন্ডিশনার প্রয়োজন যাতে করে চুল হাইড্রেটেড থাকে ও মাথার ত্বক যথেষ্ট আর্দ্রতা পায়। এজন্য আপনাকে বাজার কিংবা বিউটি শপ থেকে ময়েশ্চার সমৃদ্ধ কন্ডিশনার বাছাই করতে হবে।

অ্যাভোকাডো হেয়ার মাস্ক
রঙে থাকা রাসায়নিক উপাদান চুলের যথেষ্ট ক্ষতি করতে পারে। প্রোটিন সমৃদ্ধ অ্যাভোকাডো মাস্ক আপনার চুলকে রঙের ক্ষতিকারক প্রভাব থেকে রক্ষা করে। তাই সপ্তাহে অন্তত একবার আপনার চুলে অ্যাভোকাডো মাস্ক লাগান এবং এক ঘণ্টা পরে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

সূর্‍যের তাপ চুলে লাগাবেন না
রঙিন চুলকে সূর্‍যের তাপ থেকে দূরে রাখুন। সূর্‍যের রশ্মি চুলকে ডিহাইড্রেটেড করে দিতে পারে। এতে চুলের রঙ ফ্যাকাসে হয়ে যায়। বাইরে বের হলে ক্ষতিকারক সূর্‍যের রশ্মি থেকে চুল ঢেকে রাখুন।

কোন মন্তব্য নেই