পূজার ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ

1
.

পটুয়াখালীর গলাচিপার বকুলবাড়িয়া ইউনিয়নের গুয়াবাড়িয়া গ্রামে এক গৃহবধূকে বাড়ীতে একা পেয়ে ধর্ষণ করা হয়েছে। পাশের বাড়ির দুই দুর্বৃত্ত বুধবার রাতে তাকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই গৃহবধূ ও তার স্বজনরা। ধর্ষণে বাধা দেয়ায় দুর্বৃত্তরা গৃহবধূকে ব্যাপক মারধর করেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে আত্মীয়-স্বজনরা অচেতন অবস্থায় ধর্ষিত গৃহবধূকে উদ্ধার করে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে। ঘটনার খবর পেয়ে গলাচিপা থানা পুলিশ ধর্ষকদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই গৃহবধূ (৩২) ও তার স্বজনরা সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, ওই গৃহবধূ তার স্বামী ও ছেলেমেয়েদের সঙ্গে ঢাকায় বসবাস করেন। দুর্গা পূজা উপলক্ষে সংখ্যালঘু পরিবারের ওই গৃহবধূ একা আগেভাগে গ্রামের বাড়িতে আসেন। বুধবার রাত আনুমান সাড়ে নয়টার দিকে গৃহবধূ ঘরের দরজা খোলা রেখে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাইরে বের হন। এ সুযোগে পার্শ্ববর্তী বাড়ির দুই দুর্বৃত্ত ঘরের মধ্যে ঢুকে লুকিয়ে থাকে। গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা জোরপূর্বক তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। বাধা দিতে গেলে দুর্বৃত্তরা তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে নখের আঁচর ও খামচে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় তারা ব্যাপক মারধরও করে গৃহবধূকে। এতে ওই গৃহবধূ অচেতন হয়ে পড়েন। সকালে তাকে আত্মীয়-স্বজনরা উদ্ধার করে। তিনি ধর্ষক দুর্বৃত্তদের চিনতে পেরেছেন বলেও অভিযোগ করেন।

গলাচিপা থানার ওসি আক্তার মোর্শেদ বলেন, গৃহবধূকে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগ পেয়েই আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। গৃহবধূর জবানবন্দী গ্রহণের উদ্যোগ নিয়েছে পুলিশ।

প্রথম মন্তব্য