বোয়ালখালীতে বৌদ্ধবিহারে পাল্টাপাল্টি আয়োজনে উত্তেজনা

0
.

বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার হাজারীরচর জ্ঞানাঙ্কুর বৌদ্ধ বিহারে আগামী ৩ নভেম্বর রবিবার পাল্টাপাল্টি আহুত আয়োজন নিয়ে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এতে সংঘাতের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

এ ব্যাপারে বিশৃঙ্খলা এড়াতে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়ে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

জানা গেছে, হাজারীরচর জ্ঞানাঙ্কুর বৌদ্ধ বিহার পরিচালনা কমিটি নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সৃষ্ট বিরোধের জেরে ২০১৭ সালের গত ১৭ নভেম্বর মারাামারির ঘটনা ঘটে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছিলেন। এ বিরোধ নিরসনে দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টায় উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে উভয় পক্ষের মধ্যে আপোষ মিমাংসা হয় চলতি বছরের গত ১২ সেপ্টেম্বর।

আপোষকারী একাংশ একতরফাভাবে আগামী ৩ নভেম্বর জ্ঞানাঙ্কুর বৌদ্ধ বিহারে দানোৎত্তম শুভ কঠিন চীবর দান উৎসবের আয়োজন করায় আবারো উত্তেজনা দেখা দিয়েছে বৌদ্ধ গ্রামবাসীদের মধ্যে। এ ব্যাপারে ৩০ অক্টোবর প্রতিকার ও আপোষ বাস্তবায়নের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ২শত গ্রামবাসী স্বাক্ষরিত লিখিত দরখাস্ত দিয়েছেন।

অপর অংশও একই বিহারে একই সময়ে প্রয়াত ধর্মশ্রী মহাথের’র ১০ মৃত্যুবার্ষিকী উদযাপনের লক্ষ্যে কর্মসূচি পালনের আয়োজন করছে। ফলে আবারো সংঘাত সংঘর্ষে আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী জানান, এ বৌদ্ধ পল্লীতে ১২০টির মতো বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী পরিবার রয়েছে। তাদের নিয়েই হাজারীরচর বৌদ্ধ বিহার পরিচালিত হয়ে আসছে। তবে বিহার পরিচালনা কমিটি নিয়ে কয়েকজন ব্যক্তির ইন্ধনে দ্বিধা-বিভক্ত হয়ে মারামারি সংঘাতে লিপ্ত হয়ে পড়ে গ্রামবাসী। উপজেলা প্রশাসন ও প্রাজ্ঞ ভিক্ষুদের হস্তক্ষেপে বিষয়টি মীমাংসা করা হলেও একটি পক্ষ আগামী ৩ নভেম্বর একতরফা অনুষ্ঠান আয়োজনের মাধ্যমে বিরোধকে উস্কে দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আছিয়া খাতুন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে প্রচেষ্টা চালিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ নিরসন করা হয়েছিলো। কিন্তু দু:খের বিষয়, তারা একে অপরে মিলে মিশে চলার অঙ্গীকার করেও তা বাস্তবায়ন করছেন না। এ নিয়ে কোনো ধরণের বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করা হলে প্রশাসন কঠোর ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

কোন মন্তব্য নেই